অপারেশন শেষে পর্যবেক্ষণে সিদ্দিকুর

আগস্ট ০৪ ২০১৭, ২৩:২৪

ডেস্ক রিপোর্টঃ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে চোখ নষ্ট হওয়া তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমান চোখে অস্ত্রোপচার শেষে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

শুক্রবার বিকালে ভারতের চেন্নাইয়ের শংকর নেত্রালয়ে অপারেশন শুরু হয়। কয়েক ঘণ্টার অপারেশন শেষে তাকে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে জানান জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. গোলাম মোস্তফা। খবর যমুনা টেলিভিশনের।

চেন্নাইয়ের চিকিৎসক গত সোমবার সিদ্দিকুরের চোখ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানান, তার দুই চোখই নষ্ট হয়ে গেছে। তবে রোগী চাইলে তারা অস্ত্রোপচার করবেন। রোগীর সম্মতি থাকায় তারা অস্ত্রোপচারের দিন নির্ধারণ করেন।

দৃষ্টিশক্তি হারাতে বসা তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমান যাতে একটি চোখেও দেখতে পান সেজন্য চিকিৎসকরা সর্বাত্মক চেষ্টা করছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। সোমবার তিনি বলেন, সিদ্দিকুর দেশে ফিরলেই তার জন্য চাকরির ব্যবস্থা করা হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা রুটিনসহ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণার দাবিতে আন্দোলন করছিলেন।

২০ জুলাই শাহবাগে আন্দোলনের সময় পুলিশের টিয়ার শেলে সিদ্দিকুর রহমান চোখে আঘাত পান।

প্রথমে সিদ্দিকুরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চক্ষুবিজ্ঞান ইন্সটিটিউটে স্থানান্তর করা হয়।

সেখান থেকে ২৭ জুলাই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চেন্নাইয়ে পাঠানো হয়। এখন তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন।

সিদ্দিকুর আহত হওয়ার পর আন্দোলনকারীরা জানিয়েছিলেন, পুলিশের টিয়ার শেলের আঘাতেই সিদ্দিকুরের দুই চোখে জখম হয়। তখন পুলিশ জানায়, শিক্ষার্থীদের ছোড়া ফুলের টবের আঘাতে সিদ্দিকুর আঘাতপ্রাপ্ত হন। পাশাপাশি পুলিশ ১২০০ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করে।

এ নিয়ে চার দিকে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হলে ঘটনা তদন্তে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেন। কমিটির প্রধান হলেন ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার মীর রেজাউল আলম। অপর দুই সদস্য হলেন ডিবির ভারপ্রাপ্ত উপ-কমিশনার মো. শহীদুল্লাহ ও পুলিশের ধানমণ্ডি বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আশরাফুল ইসলাম।

তদন্ত কমিটির এক সদস্য জানান, শুক্রবার (আজ) ডিএমপির ভারপ্রাপ্ত কমিশনার শাহাবুদ্দিন কোরেশীর কাছে প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে। প্রতিবেদনে একাধিক সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তার দায়িত্বে অবহেলার বিষয়টি উঠে এসেছে বলে তিনি জানান।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>