অবশেষে অাজ চালু হচ্ছে নগরীর সকল সিসি ক্যামেরা

এপ্রিল ১৩ ২০১৭, ০৯:২৭

dav

অপরাধ নিয়ন্ত্রণে বরিশাল নগরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে ক্লোজড সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা বসানো হয়েছে। কিন্তু প্রয়োজনীয় বিদ্যুতের অভাবে এসব ক্যামেরা চালু করা যাচ্ছিলো না বলেই দাবি ছিলো বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি) কর্তৃপক্ষের।

 

 

বিসিসি’র জনসংযোগ কর্মকর্তা আহসান রোমেলের ই-মেইল থেকে পাঠানো এক বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

ইমেইল বার্তায় বলা হয়েছে, নগর ভবন সম্মেলন কক্ষে ১৩ এপ্রিল বেলা ১১টায় বরিশাল সিটি করপোরেশনের পূর্ণাঙ্গ ওয়েবসাইট উদ্বোধন করা হবে। যা উদ্বোধন করবেন মেয়র মো. আহসান হাবিব কামাল।

এছাড়া বরিশাল নগরীর সব গুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্থাপিত ২৬১টি সিসি ক্যামেরাও বৃহস্পতিবার থেকে চালু করা হবে। যার ফলে বৈশাখের আগেই সিসি ক্যামেরাগুলো চালু করা হচ্ছে।

তবে ক্যামেরাগুলো ব্যবহারে প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ ওজোপাডিকো সরবরাহ করবে কিনা বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও সিটি করপোরেশনের দাবি, বিদ্যুৎ বিভাগ নগরের নিরাপত্তার স্বার্থে এ

বিষয়টিতে নমনীয় হয়েছেন।

আইন-শৃঙ্খলাসহ সার্বিক বিষয় বিবেচনায় রেখে নিরাপত্তার স্বার্থেই এ ক্যামেরাগুলো সচল করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন করপোরেশনের সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) মো. ওমর ফারুক।

এদিকে হঠাৎ করেই সিসি ক্যামেরা চালুর বিষয়টিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। চারুকলার সদস্য কামরুল আহসান জানান, বৈশাখের আনন্দ উদযাপনে ও সাধারণ মানুষের নিরাপত্তায় এ ক্যামেরা সহায়ক হিসেবে কাজ করবে। যা চালুর মধ্য দিয়ে নগরের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির আরো উন্নতি ঘটবে।

২০১৫-২০১৬ অর্থবছরে বরিশাল নগরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও স্থাপনাকে ঘিরে সিসি ক্যামেরা বসানোর কার্যাদেশ দেয় করপোরেশন কর্তৃপক্ষ। নিয়মানুযায়ী ২ কোটি ৫৯ লাখ টাকা ব্যয়ে ২৬১টি সিসি ক্যামেরা নগরের ৩০টি ওয়ার্ডের জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও স্থাপনাকে ঘিরে বসানোর কাজ শুরু হয়। যেসব ক্যামেরা নিয়ন্ত্রণে ৮টি নিয়ন্ত্রণ কক্ষও তৈরি করা হয়েছে।

তবে ২৭ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় বরিশাল সিটি করপোরেশনের আওতাধীন নতুন কোনো স্থাপনায় সংযোগ দিতে চায়নি বিদ্যুৎ বিভাগ (ওজোপাডিকো)। যার মধ্যে আটকা পড়ে যায় সারফেস ওয়ার্টার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট ও সিসি ক্যামেরা সার্ভিস।

সূত্রঃ বাংলানিউজ

Facebook Comments