অভিমানেই দিল প্রাণ!

আপডেট : May, 8, 2017, 9:58 pm

গলায় ওড়না প্যাঁচানো ছিল তার। ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছিল নিথর দেহ। এভাবেই পাওয়া যায় পঞ্চম শ্রেণির সেই ছাত্রীকে। পরিবারের ভাষ্য, পড়াশোনা বাদ দিয়ে টিভি দেখায় বকাঝকা করেন মা। এতে অভিমান করে নিজের ঘরে দরজা লাগিয়ে আত্মহত্যা করে ওই ছাত্রী। গতকাল রোববার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদপুরের বোয়ালমারী পৌরসভার কামারগ্রামে।

ফারিয়া নামের ১০ বছরের ওই শিশুটি কামারগ্রামের সৌদিপ্রবাসী মো. বাবর আলী ও মরিয়ম বেগমের মেয়ে। দুই ভাইবোনের মধ্যে সে বড়। স্থানীয় নিউ মডেল প্রি-ক্যাডেটে পড়ত।

ফারিয়ার পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রোববার বিকেলে ফারিয়া প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ি ফেরে। সন্ধ্যা সাতটার দিকে সে টিভিতে সিরিয়াল দেখা শুরু করে। পড়াশোনা বাদ দিয়ে টিভি দেখায় মেয়েকে বকাঝকা করেন মা মরিয়ম। একপর্যায়ে মরিয়ম টিভি

বন্ধ করে দেন। এ ঘটনার পর ফারিয়া নিজ কক্ষে গিয়ে ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে দেয়। ভেতরে কোনো সাড়া না পেয়ে ফারিয়ার মাসহ পরিবারের সদস্যরা দরজা খুলে দেখতে পান ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না দিয়ে প্যাঁচানো ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে ফারিয়া। পরিবারের লোকজন দ্রুত ফারিয়াকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিউ মডেল প্রি-ক্যাডেটের অধ্যক্ষ হাসিনা মমতাজ জানান, ফারিয়া মেধাবী ও শান্ত প্রকৃতির মেয়ে ছিল। রোববারও সে দুই বেলা প্রাইভেট পড়েছে।

বোয়ালমারী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শহিদুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, টিভি দেখার জন্য রাগারাগি করায় মায়ের ওপর অভিমান করে আত্মহত্যা করেছে ফারিয়া। এ ঘটনায় বোয়ালমারী থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে লাশটি ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

Facebook Comments