ঈদ শান্তি ও বন্ধুত্বপূর্ণ সমাজ গড়ে তোলে: রাষ্ট্রপতি

আপডেট : June, 26, 2017, 10:29 pm

‘শান্তিপূর্ণ ও বন্ধুত্বপূর্ণ সমাজ গড়ে তোলে  ঈদুল ফিতর; ধনী, দরিদ্র, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ও সুবিধাবঞ্চিত লোকসহ সব মানুষকে একটি ছাতার নিচে নিয়ে আসার সুযোগও সৃষ্টি করে দেয়।’ সোমবার (২৬ জুন) সকালে বঙ্গভবনে মুসলমানদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং তার স্ত্রী রাশিদা খানম সকাল ১০টা থেকে দুপুর পর্যন্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘মাসব্যাপী রমজান শেষে ঈদে ধনী দরিদ্র, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং সুবিধাবঞ্চিতসহ সমাজের সব শ্রেণীর মানুষের মধ্যে ভালবাসা, সম্প্রীতি ও ঐক্যের সম্পর্ক গড়ে তোলার সুযোগ তৈরি হয়।’

রাষ্ট্রপতি ইসলামকে শান্তি ও সমৃদ্ধির ধর্ম হিসাবে উল্লেখ করে বলেন, ‘ইসলামে হিংসা,

ভেদাভেদ ও সন্ত্রাসের কোনও ঠাঁই নেই এবং ইসলাম কখনও জঙ্গিবাদকে সমর্থন জানায় না।’

রাষ্ট্রপতি ঈদুল ফিতরের শিক্ষা একটি সুখী ও সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ গড়তে সহায়তা করবে বলে আশা প্রকাশ করেন।
.

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী শুভেচ্ছা বিনিময় করছেন, ছবি- ফোকাস বাংলাসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী, প্রধান বিচারতি এস কে সিনহা, কয়েকজন মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, সংসদ সদস্য, বিচারক, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা এবং তিন বাহিনীর প্রধান, পুলিশের আইজি, ব্যবসায়ী নেতা, ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব, সিনিয়র সাংবাদিক, শিল্পী, পদস্থ বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা যোগ দেন।

এছাড়া অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত কূটনৈতিক কোরের ডীন, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও হাইকমিশনার এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধানরাও যোগ দেন। সূত্র- বাসস।

Facebook Comments