উজিরপুরে আদালতের নির্দেশকে বৃদ্ধাআঙ্গুল দেখিয়ে ভূমিদস্যুদের ঘর নির্মান

আপডেট : June, 17, 2017, 5:12 pm

উজিরপুর প্রতিনিধি: বরিশালের উজিরপুরে আদালতের নির্দেশকে বৃদ্ধাআঙ্গুল দেখিয়ে রাতের আধারে প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় ঘর নির্মান করেছে ভূমিদস্যুরা। এ ঘটনায় সজল বাদী হয়ে উজিরপুর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করতে গিয়ে ভূমিদস্যুদের তোপের মুখে পরে এস আই হাসান সহ তার ফোর্স। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন পূর্বে বড়াকোঠা ইউনিয়নের ৪৪ নং মৌজার ৯৯৬ নং খতিয়ানে ৬,২৮ ও ২৯ নং দাগে ২২ শতাংশ জমি মৃত মমিনউদ্দিন মল্লিকের ওয়ারিশ জয়নাল আবেদীন, মো: নুরুল ইসলাম, আছিয়া বেগম এর কাছ থেকে দলিল মূলে মো: শামীম মল্লীক, তারিকুল ইসলাম, শাহীন ও সজল মল্লিক ০৭ জুন ২০১৭ সালে ক্রয় করে । ক্রয় সূত্রে জমি দখল করতে গেলে স্থানীয় প্রভাবশালী ভূমিদস্যু মো: সেলিম মল্লিক, আ: ছালাম মল্লিক, মো: সায়েদ মল্লিক, মো: তানবির মল্লিক, মো: সাব্বির মল্লিক সহ আরো ১০/১২ জন অস্ত্র স্বস্ত্র নিয়ে তাদেরকে বাঁধা প্রদান করে। জমি ক্রেতা সজল মল্লিক এ ঘটনা প্রেক্ষিতে বরিশাল বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদলতে ফৌজদারী ১৪৫ ধারায় অভিযোগ দায়ের করনে । অভিযোগ আমলে নিয়ে বিজ্ঞ আদালত ১৪৫ ধারা

জারি করে উজিরপুর থানাকে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন ও সরজমিনে গিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার জন্য নির্দেশ দেয়। আদালতের সেই নির্দেশ অমান্যকরে প্রভাবশালী ভূমিদস্যুরা গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতের আধারে ঘর নির্মান করে। এ ঘটনায় সজল বাদী হয়ে থানায় আরো একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে এস আই হাসান কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী ঘটনাস্থলে গিয়ে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করার জন্য কাজ বন্ধ করে দেয়। ঘর নির্মান বন্ধ করলে ভূমিদস্যুরা এস আই হাসানকে দেখা নেওয়ার হুমকি দেয়। এস আই হাসান উভয়পক্ষকে কাগজপত্র নিয়ে থানায় আসার জন্য বললে ভূমিদস্যুরা উল্টো এস আই হাসানের উপর আরো ক্ষিপ্ত হয়। এ ব্যাপারে এস আই হাসান জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে কাজ বন্ধ করে দিয়েছি। কাজ বন্ধ করতে বলায় সেলিম মল্লিকসহ আরো অনেকের তোপের মুখে পড়তে হয় আমাকে । বিষয়টি আমি ওসি স্যার কে জানালে তিনি বিষয়টি দেখছেণ বলে আমাকে ওই স্থান থেকে চলে আসতে বলেন। এ ব্যাপারে জমি ক্রেতা বাদী সজল জানান, আমরা সম্পূর্ণ বৈধ্যভাবে ক্রয় করেছি কিন্তু বিবাদীরা প্রভাবশালী হওয়ায় আমরা জমি ভোগ দখল করতে পারছিনা। বর্তমানে আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

 

Facebook Comments