উজিরপুরে নির্বাচনের দাবীতে বিক্ষোভ

মার্চ ২৯ ২০১৭, ১৪:১৭

 

উজিরপুর প্রতিনিধিঃ দীর্ঘ ১৪ বছর যাবত ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত থাকায় বরিশালের উজিরপুরের শিকারপুর ইউনিয়নবাসী নির্বাচনের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে।

অাজ বুধবার ২৯ মার্চ সকাল ১১টায় উপজেলা নির্বাচন অফিস সংলগ্ন উজিরপুর-ইচলাদি প্রধান সড়কে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। এ সময় দীর্ঘ ১ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে ওই এলাকার শত শত নারী-পুরুষ মানববন্ধনে অংশগ্রহন করে। শিকারপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আ: রহিম মাষ্টারের সভাপতিত্বে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ইচলাদী বাজার ব্যবসায়ী সমিতি ও ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক মো: সরোয়ার হোসেন,ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম মাঝি, ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম সরদার, উপজেলা জাসদ’র সভাপতি ডা: গফুর উদ্দিন মঞ্জু, শিকারপুর শেরে-ই বাংলা ডিগ্রী কলেজ শাখার ছাত্রলীগ সভাপতি শাকিল মাহমুদ আউয়াল, জাতীয় পার্টির নেতা সৈয়দ জাহিদ আলম, ইউনিয়ন বিএনপি আহবায়ক আঃ মন্নান হাওলাদার, মুক্তিযোদ্ধা আক্রাম হোসেন প্রমূখ।

সমাবেশে বক্তারা ক্ষুব্ধ কন্ঠে বলেন, শিকারপুর ইউনিয়ন নির্বাচনে কোন ধরনের আইনী জটিলতা না থাকা স্বত্ত্বেও  অজ্ঞাত কারনে দীর্ঘ ১৪ বছর যাবত ভোটাধিকার থেকে আমরা বঞ্চিত। আর এ ভোটাধিকার প্রয়োগ ও অতিদ্রুত ওই ইউনিয়নের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনারের নিকট দাবী জানান। অন্যথায় তারা উপজেলা

নির্বাচন অফিস ঘেরাও কর্মসূচীসহ কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দিয়েছেন। মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তার মাধ্যমে বরিশাল জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন।

উল্লেখ্য যে, সর্বশেষ গত ৯ মার্চ ইউপি নির্বাচনের সাধারণ তফসিলে শিকারপুর ইউনিয়নটি অন্তর্ভুক্ত না হওয়ায় ভোটারদের মাঝে চরম উত্তেজনা ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সূত্র মতে, সর্বশেষ ২০০৩ সালে ওই ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল এবং ২০০৯ সালে নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও ইউনিয়নটির ৩টি ওয়ার্ডের অংশ বিশেষ নিয়ে উজিরপুর পৌরসভা গঠিত হওয়ায় সীমানা নির্ধারন জটিলতায় নির্বাচন স্থগিত হয়। এরপর ওই ইউনিয়নের নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বাদল ২০০৯ সালে ইসতেফা দিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করে নির্বাচিত হয়। সেই থেকে অদ্যবধি পর্যন্ত আবুল কালাম সরদার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান’র দায়িত্ব পালন করে আসছে। দীর্ঘদিন ইউনিয়নটির সীমানা নির্ধারন নিয়ে জটিলতা থাকলেও বর্তমানে তা অবসান হয়ে সীমানা নির্ধারন, ওয়ার্ড বিন্যাস ও ভোটার তালিকা হালনাগাদসহ সকল দাপ্তরিক কাজ সম্পন্ন হয়েছে। সেই সাথে পৌরসভায় অন্তর্ভুক্ত ওয়ার্ড বাদ দিয়ে নতুন করে ওয়ার্ড বিন্যাসের ফলে ৪ জন ইউপি সদস্য দিয়ে দায়সাড়া ভাবে পরিষদের কার্যক্রম পরিচালিত হওয়ায় ইউনিয়নবাসী রয়েছে চরম দুর্ভোগে। প্রতিনিয়ত তারা কাঙ্খিত সেবা ও উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>