এবার উল্টোপথে অতিরিক্ত ডিআইজির গাড়ি আটক

সেপ্টেম্বর ২৬ ২০১৭, ২৩:২৬

উল্টোপথে যাওয়ার কারণে এবার পুলিশের একজন অতিরিক্ত ডিআইজির গাড়ি আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর বিজয় সরণির মোড়ে সরকারি জিপটি উল্টোপথে মহাখালীর দিকে যেতেই ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা তা আটক করেন। এ ছাড়া হেয়ার রোডে উল্টোপথে গিয়ে একজন মেজরের ব্যক্তিগত গাড়িচালককে জরিমানা দিতে হয়েছে।

মঙ্গলবার অভিযানের তৃতীয় দিন এ দুটি এলাকায় উল্টোপথে যাওয়া ৫৯টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা করে ট্রাফিক পুলিশ। এর মধ্যে ৫৪টি মামলাই মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে হয়।

মঙ্গলবার উল্টোপথে গাড়ি চলাচল তুলনামূলক কম ছিল। এদিন উল্টোপথে মোটরসাইকেল চললেও উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের গাড়ি দেখা যায়নি। এর আগে রোববার পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ দুদক চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে রাজধানীর হেয়ার রোডে উল্টোপথে চলা গাড়ির বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে। ওই দিন পুলিশের হাতে ধরা পড়া ৫৭টি গাড়ির মধ্যে ২৬টি ছিল প্রতিমন্ত্রী-সচিবসহ ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের। সোমবার দ্বিতীয় দিন রাজধানীর কয়েকটি এলাকায় অভিযানের মধ্যেও এমপি, অর্থ মন্ত্রণালয় ও পুলিশসহ সরকারি বিভিন্ন দপ্তর এবং বেসরকারি গাড়ি উল্টোপথে গিয়ে জরিমানা দেয়। প্রথম দু’দিনই উল্টোপথে গিয়ে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মাফরুহা সুলতানার গাড়ি জরিমানার শিকার হয়। উল্টোপথে গাড়ি চালানোর অপরাধে মঙ্গলবার ওই সচিবের গাড়িচালক বাবুল মোল্লাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল চলমান অভিযান সম্পর্কে বলেন, ট্রাফিক পুলিশের অভিযানে সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের উল্টোপথে গাড়ি চালানো বন্ধ হবে। উল্টোপথে সচিবের গাড়ি চালানো প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, সব সময় উল্টোপথে গাড়ি না চালানোর আহ্বান জানানো হচ্ছে। কোনো কোনো রাস্তায় অনেক সময় যানজট লেগেই থাকে, তার মানে এই নয়, তারা উল্টো, ফাঁকা পথে পার হয়ে যাবেন। এতে বড় যানজট লেগে যায়। তিনি সবাইকে ট্রাফিক আইন মেনে চলার আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার

বিকেল থেকে রাজধানীর হেয়ার রোডে ও বিজয় সরণী মোড়ে অভিযান শুরু করে ট্রাফিক পুলিশ। বিকেল ৪টা থেকে ৫টা পর্যন্ত এক ঘণ্টা হেয়ার রোডে অবস্থান করে দেখা যায়, উল্টোপথে কোনো ভিআইপি বা উচ্চপদস্থ কোনো কর্মকর্তার গাড়ি চলেনি। তবে অভিযান শুরুর আগের আধা ঘণ্টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনার সামনের সড়কে উল্টোপথে ১০টি মোটরসাইকেল যেতে দেখা যায়। এর মধ্যে চারটি মোটরসাইকেল ছিল পুলিশের। সন্ধ্যার দিকে সরকারি দপ্তরের একটি গাড়ি ওই পথে গেলেও তা আটকাতে পারেনি পুলিশ।
ওই সড়কে অভিযানে থাকা পুলিশের রমনা ট্রাফিক জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার মো. আলাউদ্দিন  বলেন, হেয়ার রোড থেকে বাংলামটর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে উল্টোপথে যাওয়ার সময় একজন মেজরের ব্যক্তিগত গাড়িচালক ও একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালকের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া সাতটি মোটরসাইকেলকেও জরিমানা করা হয়েছে।

পুলিশের ট্রাফিক পশ্চিম বিভাগ বিজয় সরণি মোড়ে বিকেল ৫টা থেকে অভিযান শুরু করে। সেখানে ট্রাফিকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। ওই সময় অতিরিক্ত ডিআইজির গাড়ি উল্টোপথে যাওয়ার সময় ট্রাফিক সদস্যরা তা আটক করেন। এরপর চালকের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়। তবে গাড়িতে বসে থাকা অতিরিক্ত ডিআইজি তার নাম বলতে চাননি। ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তারাও তার নাম বলেননি। ওই পথে উল্টো যাওয়ার সময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আবর্জনাবাহী একটি গাড়ি ও ব্যক্তিগত একটি মাইক্রোবাসকে জরিমানা করা হয়। পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের (উত্তর) যুগ্ম কমিশনার আবদুর রাজ্জাক বলেন, বিজয় সরণি মোড়ে অভিযানে ৫০টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা ও জরিমানা করা হয়েছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মোসলেহ উদ্দিন আহমদ বলেন, উল্টোপথে গাড়ি চলাচল কমে এসেছে। তবে তা পুরোপুরি বন্ধ করতে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>