কক্সবাজার-চট্টগ্রাম অতিক্রম করছে ‘মোরা’

মে ৩০ ২০১৭, ০৯:৫৩

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ উত্তরদিকে অগ্রসর হয়ে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টায় কুতুবদিয়ার নিকট দিয়ে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করতে শুরু করেছে। এটি আরও উত্তর দিকে অগ্রসর হতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে ঘণ্টায় ১৩৫ কিলোমিটার বেগে ২-৩ ঘণ্টার মধ্যে বাংলাদেশ অতিক্রম করতে পারে ঘূর্ণিঝড় মোরা। এরপর এটি ভারতের মনিপুরের দিকে অতিক্রম করবে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় ১৬ নং আবহাওয়ার বিশেষ বুলেটিনে এ কথা বলা হয়েছে।

এতে বলা হয় বেলা সাড়ে ১১টার মধ্যে ঘূণিঝড়টি দুর্বল হয়ে ভারতের মনিপুরের দিকে অগ্রসর হবে।

সকাল সাড়ে ৮টা থেকে সোয়া ৯টা পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়টি কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকুল, সেন্টমার্টিন, শাহপরান ও টেকনাফে অবস্থান করছিলো।

এসময় উপকূলীয় ওইসব এলাকায় উপড়ে গেছে গাছপালা, বহু ঘরবাড়ি। উপকূলীয় ওই সব এলাকায় ৬-৭ ফুট জলোচ্ছাস হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায় প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে।

প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কিঃ মিঃ এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৮৯ কিঃ মিঃ যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১১৭ কিঃ মিঃ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে।

এ কারণে চট্টগ্রাম ও

কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১০ নম্বর পুনঃ ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, নোয়াখালী, লক্ষীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ১০  নম্বর পুনঃ ১০  নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৮  নম্বর পুনঃ ৮  নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

উপকূলীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ৮  নম্বর পুনঃ ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’-এর প্রভাবে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪-৫ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

প্রবল ঘূর্ণিঝড় ’মোরা’ অতিক্রকালে কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, পিরোজপুর জেলা সমূহ এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণসহ ঘন্টায় ৮৯-১১৭ কিঃ মিঃ বেগে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলার সমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>