কলাপাড়ায় চক্ষু উৎপাটনে ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

মে ০৮ ২০১৭, ২২:৪২

কলাপাড়া প্রতিনিধি:তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের এক স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে চক্ষু উৎপাটন করেছে একই এলাকার সন্ত্রাসীরা। আহতের আত্মীয় ও স্থানীয়রা হাসান নামের ওই স্কুল ছাত্রকে উদ্ধার করে প্রথমে কলাপাড়া হাসপাতালে পরে  ঢাকার জাতীয় চক্ষু হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে আহত হাসানের পিতা আবুল হোসেন কলাপাড়া থানায় ১৭ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। স্থানীয় ও মামলা সূত্রে প্রকাশ, উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের বেতকাটা গ্রামের আবুল হোসেন এর পূত্র হাসান ধুলাসার মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এ বছর এস,এস,সি পরীক্ষা দিয়েছে। বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পাশ্ববর্তী বালিয়াতলী ইউনিয়নের প্রবাসী শহীদুল ইসলামের পূত্র শামিম সিকদারের সাথে তার কথার কাটাকাটি হয়। তারই জের ধরে ২৯ এপ্রিল শামিমের বাড়ির সামনে হাসানকে একা পেয়ে লোহার রড, দা, ছেনা ইত্যাদি দিয়ে প্রথমে এলোপাথাড়ি ভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে চক্ষু উৎপাটন

করে এবং হাসানের সাথে থাকা ৫০ হাজার টাকা ও ৭৫০০ টাকা মূল্যের একটি মোবাইল সেট নিয়ে যায় বলে মামলায় উল্লেখ করে। আহত হাসানকে তার আত্মীয়রা মূমুর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে কলাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ঢাকার জাতীয় চক্ষু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে শামিম, শহিদুলসহ ১৭ জনকে আসামী করে কলাপাড়া থানা একটি মামলা দায়ের করা হয়।  এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ধুলাসার ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ হাবিবুর রহমান জানান, ঘটনাটি মর্মান্তিক। এর সুষ্ঠু বিচার হওয়া উচিত। মামলার আসামী শহিদুল ইসলাম সিকদার জানান, আমার ছেলে শামিমকে হাসান সহ ৪/৫ জন এক মাস আগে সংঘবদ্ধ হয়ে মারধর করে এবং স্বর্ণের একটি চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কলাপাড়া থানার এস,আই শহিদুল ইসলাম জানান, মামলাটি রেকর্ড হয়েছে। ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। আসামীদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>