কলাপাড়ায় বিধবার জমি থেকে জোরপূর্বক মাটি কেটে নেয়া হলো ইটভাটায়

জুন ১৫ ২০১৭, ২৩:৩২

কলাপাড়া প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় জনবসতিপূর্ন এলাকায় ইটভাটা করে এক বিধবার জমি থেকে জোরপূর্বক মাটি কেটে ইট তৈরীতে বাঁধা-নিষেধ করায় তাদের রাতের আধাঁরে হত্যা করে লাশ নদীতে ফেলে দেয়ার হুমকী’র অভিযোগে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। কলাপাড়া নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এবিএম সাদিকুর রহমান বৃহস্পতিবার মামলাটি আমলে নিয়ে অভিযুক্ত সুমন ও জহির উদ্দীন ওরফে তেল জহির সহ ১০ জনকে কারন দর্শানোর আদেশ দিয়েছেন। মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের নবীপুর এলাকার বিধবা তাছলিমা বেগম জেএল নং-৪১/৫, টুঙ্গিবাড়িয়া মৌজার ৪৫২ নং খতিয়ানে ১.৩০ একর জমির মালিক বিদ্যমান থাকিয়া এবং পাউবো’র বেড়িবাঁধ পার্শ্ববর্তী অব্যবহৃত কুয়া লীজ নিয়ে ৭ বছরের শিশু সন্তান মোবারক ও কন্যা

স্বর্না বেগমকে নিয়ে শান্তিপূর্নভাবে মাছের ঘের তৈরী করে মাছ চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করছে। কিন্তু, সুমন ও জহির উদ্দীন ওরফে তেল জহির ওই বিধবার বসতবাড়ী সংলগ্ন এলাকায় ইটভাটা ও ডিজেল চালিত স্ব-মিল বসিয়ে বিধবার লীজকৃত জমি থেকে জোরপূর্বক ১৮-২০ ফুট গভীর মাটি কেটে ইট তৈরী করে। এতে বাঁধা-নিষেধ করায় সুমন ও জহির উদ্দীন ওরফে তেল জহির এর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী তাদের বসতবাড়ী থেকে উচ্ছেদ এবং রাতের আধাঁরে হত্যা করে লাশ নদীতে ফেলে দেয়ার হুমকী দেয়। যেকোন সময় অভিযুক্তদের দ্বারা খুন জখম সহ জানমালের গুরুতর ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা বিদ্যমান থাকায় বিধবা তাছলিমা বেগম’র মাতা মোসা: আম্বিয়া বেগম বাদী হয়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন।

 

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>