কলাপাড়া হাসপাতালে অগ্নিদগ্ধ শিশুর মৃত্যু,ডাক্তারদের অবহেলার অভিযোগ

আগস্ট ০৭ ২০১৭, ২৩:১৬

এস এম আলমগীর হোসেন,কলাপাড়া: অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে তিনদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে সোনিয়া সাড়ে তিন বছরের অগ্নিদগ্ধ শিশুর মৃত্যু হয়েছে।
সোমবার বিকেলে কলাপাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
নিহত শিশু কলাপাড়ার চাকামইয়া ইউনিয়নের নিশানবাড়িয়া গ্রামের দিনমুজর আলিম হোসেনের মেয়ে।
জানা গেছে, গত ৫ আগষ্ট (শনিবার) দুপুরে গরম ভাতের মার ঢেলে পড়ে তার দু’পা ও পেটের নিচের অনেকাংশ ঝলসে যায়। তার আত্মীয় স্বজনরা তাকে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে।
পরে চিকিৎসকরা তাকে বরিশাল রেফার করলেও আর্থিক অনটনের কারনে শিশুটিকে নিতে যেতে পারেনি বলে জানা গেছে। সোনিয়ার মা জেসমিন বেগম জানান,গত দু’ দিন মেয়ের চিকিৎসার টাকার জন্য সকলের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি। কোন উপায় না পেয়ে আজ কানের জিনিস বন্ধক রেখে টাকা নিয়ে

আসার পার দেখি আমার মেয়ে মারা গেছে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, মাইয়াডারে ভর্তির পর ডাক্তাররা একটু ভালো কইর‌্যা দ্যাহেও নায়। খালি কইছে বরিশাল যান, বরিশাল যান।
মোর মাইয়্যা বাঁচবে না হেইয়া হ্যারা কয় নায়। নার্স আয়া কাউরে পাই নাই মোগো ধারে। ডাক্তাররা  ভালো করে দ্যাখলে মোর সোনার চান মরতো না।
কলাপাড়া হাসপাতালে চিকিৎসক ডা.আশ্ররাফুল ইসলাম জানান, শিশুটির অভিভাবকদের বরিশাল নেয়ার জন্য বার বার বলা সত্বেও তারা তার কথা শোনেন নি। এমনকি ঠিকমত ওষুধ পত্রও কিনতে পারেনি।
তবে মারা যাওয়ার দিন সকালে শিশুটি মোটামুটি সুস্থ  ছিল। কলাপাড়া হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.জুনায়েদ হোসেন খান লেলিন জানান, পোড়া রোগীর চিকিৎসা এখানে নেই। তবুও শিশুটিকে সাধ্যমত চিকিৎসা দেয়া হয়েছিল।  রোগীর স্বজনদের অভিযোগ মিথ্যা বলে তিনি জানান।

Facebook Comments