কলাপাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে স্বজনদের উত্তেজনা

 

কলাপাড়া প্রতিনিধিঃকলাপাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সালমা বেগম (৪০) এক রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে রোগীর স্বজন এবং স্থানীয় লোকজন উত্তেজিত হয়ে চিকিৎসক জেএইচ খান লেনিনকে লাঞ্চিত করতে যায়। এনিয়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করে। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। শুক্রবার সকালে প্রায় ঘন্টাকাল এনিয়ে উত্তেজনা দেখা দেয়। রোগীর স্বজনরা ডাক্তার ও নার্সদের গাফিলতিকে দায়ী করেছেন। চিকিৎসক জানান এ রোগীকে তারা আগেই বরিশালে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। এনিয়ে পরষ্পর বিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে। জানা গেছে, নীলগঞ্জের রহমতপুর গ্রামের রুহুল আমিন হাওলাদারের স্ত্রী সালমা বেগম বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি হন। শ^াসকষ্ট ও পেটের পীড়াজনিত অসুখে আক্রান্ত সালমা ডাঃ জেএইচ খান লেনিনের তত্ত্বাবধানে ভর্তি ছিলেন। সালমার ছেলে সোহেল হাওলাদার ও ভাইয়ের ছেলে বেল্লাল গাজী জানান, রাত সাড়ে আটটায়

রোগী অসুস্থ হয়ে পড়ে। তখন চিকিৎসক লেনিনকে জানানো হলেও তিনি কর্ণপাত করেননি। এছাড়া মধ্যরাতেও তাকে বলা হয়েছে। তখন বরিশাল নেয়ার জন্য বলেছেন। কিন্তু রোগী দেখেননি। এক পর্যায়ে শুক্রবার সকালে (সাড়ে আট টায়) একটি ইনজেকশন দেয়ার পরেই তার মা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। এদের অভিযোগ ডাক্তার-নার্স যারাই ডিউটিতে ছিলেন কেউ কর্ণপাত করেননি। ডাঃ লেনিন জানান, রোগীর লাঞ্চে সমস্যা ছিল। তিনি তিন দফা দেখেছেন। বিভিন্ন পরীক্ষা করেছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলেই বরিশালে রেফার করা হয়েছে। কিন্তু রোগীর স্বজনেরা পরে নিবেন বলেছেন। চিকিৎসায় কোন ত্রুটি ছিল না। আর রোগী মারা গেলে স্বজনরা একটু উত্তেজিত হতেই পারে। এটি প্রত্যেকের বেলায় হয়ে থাকে। কলাপাড়া থানার ওসি জিএম শাহনেওয়াজ জানান, পুলিশ গিয়ে উত্তেজিত লোকজনকে শান্ত করেন। তবে এ সংক্রান্ত কেউ কোন লিখিত অভিযোগ দেয়নি।

 

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>