কুয়াকাটা থেকে উদ্ধার হওয়া অন্তসত্ত্বা নারী ও যুবকের লাশের পরিচয় মিলবে কবে?

মার্চ ১৮ ২০১৭, ২১:৩৪

কুয়াকাটা প্রতিনিধিঃ কুয়াকাটার চরগঙ্গামতি সৈকতে অন্তঃসত্ত্বা অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধারের সাড়ে পাঁচ মাস পরও পরিচয় মেলেনি। আনুমানিক ২৫-৩০ বছর বয়সী হতভাগী এ মহিলার মৃতদেহ ২০১৬ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর রাতে মহিপুর থানা পুলিশ উদ্ধার করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বিকৃত লাশটি দেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশের ধারনা, ৩/৪দিন আগে ওই নারীকে হত্যা করে লাশ সাগরে ফেলে দেয়া হয়েছে। পরে জোয়ারের পানিতে ভেসে গঙ্গামতির ওই চরে লাশটি আটকে যায়। এ ঘটনায় মহিপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়। অজ্ঞাত আসামি রয়েছে এ মামলায়। এছাড়া গত বছরের একই মাসের ৬

সেপ্টেম্বর রাতে কুয়াকাটা সৈকতের পন্ডিম দিকে লেম্বুরচর বনাঞ্চল থেকে হাত বাধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয় অজ্ঞাত যুবকের (৩৫) মৃতদেহ। মৃত ব্যক্তির হাত দুটি পেছন থেকে বাধা ছিল। মৃত যুবকের পড়নে জিন্সের প্যান্ট ও গায়ে গেঞ্জি ছিল। উদ্ধারকারী পুলিশ কর্মকর্তা এসআই মনিরুজ্জামান জানিয়েছিলেন, দুই/চারদিন আগে এ যুবককে খুন করে লাশ ফেলে রাখা হয়েছে। কিš‘ এ দুই খুনের কোন রহস্য আজ অবধি বের হয়নি। এমনকি মৃত ব্যক্তিদের পরিচয় পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। মহিপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। মৃত ব্যক্তিদের পরিচয়সহ খুনিদের শণাক্তের কাজ চলছে।

Facebook Comments