‘খালেদার ঘন ঘন হাজিরা সরকারের নীল নকশা’

জুন ২৪ ২০১৭, ১০:১৩

দুর্নীতির মামলায় দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ঘন ঘন আদালতে যেতে বাধ্য করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। বিষয়টিকে সরকারের ‘নীল নকশা’ হিসেবে দেখছে দলটি।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘সরকারের নীল নকশা অনুযায়ীই বিএনপি চেয়ারপারসনকে ঘন ঘন আদালতে হাজিরা দিতে বাধ্য করা হচ্ছে। এই আচরণ অমানবিক, ন্যায়নীতি পরিপন্থী ও প্রধানমন্ত্রীর সর্বময় কর্তৃত্বে একদলীয় দুঃশাসনের বর্ধিত প্রকাশ।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘ঈদের আর মাত্র দুদিন বাকি থাকলেও বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজিরা দিতে হয়েছে। তার আগের সপ্তাহগুলোতেও বিএনপি চেয়ারপারসনকে একইভাবে মিথ্যা ও রাজনৈতিক হয়রানিমূলক মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে হয়েছে।’

‘ঈদের দুদিন পর অর্থাৎ ২৯ জুন তাকে আবার হাজিরা দিতে হবে। এটি বিএনপি চেয়ারপারসনের ওপর সরকারের পরিকল্পিত নির্যাতনের বহিঃপ্রকাশ। কোনো রকম বিরাম বা বিরতি না দিয়ে ক্রমাগত প্রতি সপ্তাহে আদালতে উপস্থিত করানো বিএনপি চেয়ারপারসনকে হয়রানি করার উদ্ধত আচরণ।’

খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরা

দেওয়াকে কেন্দ্র করে সেখানে উপস্থিত নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তাদের মুক্তি চান রিজভী।

সরকার নিম্ন আদালতগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘এতে বিএনপির মতো বিরোধী দলগুলোকে বিপর্যস্ত করাই একমাত্র টার্গেট।’

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদের নির্দেশে চট্টগ্রামের রাঙামাটিতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ওপর হামলা হয়েছে বলে দাবি করেন রিজভী।

তিনি বলেন, ‘এর অকাট্য প্রমাণ ভিডিও ফুটেজ ইতোমধ্যেই আমাদের হস্তগত হয়েছে। মূল পরিকল্পনাকারী ওই এলাকার এমপির পরিকল্পনা ছিল হয়তো আরো ভয়ংকর। যদি বিএনপি মহাসচিব রাস্তা পরিবর্তন না করতেন তাহলে তার প্রাণনাশেরও আশংকা ছিল।’

‘এ ঘটনায় যখন সমালোচনার ঝড় বইছে, তখন হাছান মাহমুদ তার দলীয় ক্যাডারকে সিএনজি ড্রাইভার বানিয়ে বিএনপি নেতাদের নামে বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও লাজলজ্জাহীন কাল্পনিক মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। মামলা দায়েরের এই ঘটনা কেবল হাস্যকরই নয়, এটি আওয়ামী লীগের নোংরা রাজনীতি ও নির্লজ্জ মিথ্যাবাদিতার একটি বহিঃপ্রকাশ।’

মামলা দায়েরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারের দাবি করেন এিনপির এই জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>