‘খোঁচা দেওয়া’ স্মৃতি ভুলতে চান সাব্বির

জুলাই ২০ ২০১৭, ২৩:৪৭

স্পোর্টস ডেস্কঃ চ্যাম্পিয়নস ট্রফি একেবারেই ভালো কাটেনি সাব্বির রহমানের। দলে তার জায়গা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে দেরি হয়নি তাই। বাইরের সমালোচনা তো আছেই, সাব্বির নিজেই পুড়েছেন অনুশোচনায়। যেগুলো কাঁটা হয়ে বিঁধে আছে তার মনে। মাঝেমধ্যেই স্মৃতির অতল থেকে বেরিয়ে এসে খোঁচা মারছে এই ব্যাটসম্যানকে। মুক্তি চান তিনি এই পরিস্থিতি থেকে। আর তার জন্য চাইছেন শুধু একটি ‘ভালো ম্যাচ’।

প্রথম সুযোগটা পাচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে। ফর্মে ফেরার জন্য ঘরের মাঠের সিরিজটা হতে পারে সাব্বিরের সবচেয়ে ভালো মঞ্চ। ২৫ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান অবশ্য শুধু টেস্ট বলেই যে ভালো খেলতে চান, তা নয়; নিজের আত্মবিশ্বাস ফিরে পেতে চাইছেন যে কোনও একটি ম্যাচ, ‘না, শুধু  টেস্ট বলে নয়, আমি আসলে খুব মরিয়া যে কোনও একটা ম্যাচ খেলার জন্য।  কারণ শেষ তিন-চার ম্যাচ ভালো খেলতে পারিনি।’

সমালোচকদের কথা শুনে নয়, ব্যর্থতার সময়গুলো অবিরত খোঁচা মেরে যাওয়ায় দুঃসহ স্মৃতি থেকে মুক্তি চাই সাব্বিরের, ‘(চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ব্যর্থতার) ওই স্মৃতি এখনও হয়তো ভেতরে খোঁচা দেয়। রান করতে পারিনি বলে হয়তো এখনও খারাপ লাগে। তাই সামনে যে সিরিজই হোক না কেন, সেটা টি-টোয়েন্টি, ওয়ানডে বা টেস্ট; যদি ওখানে আমি ভালো খেলতে পারি, তাহলে ওই স্মৃতিগুলো

ভুলতে পারব। আমি চেষ্টা করছি ভালো সিরিজ খেলার, সেজন্যই নিজেকে প্রস্তুত করছি।’

চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে সময়টা ভালো কাটেনি বলে আবার ব্যর্থতার তালিকাতেও ফেলছেন না নিজেকে। কারণ কয়েক ম্যাচ দিয়ে কোনও কিছুকে মূল্যায়ন করতে চান না সাব্বির, ‘আমার জাতীয় দলের ক্যারিয়ার তিন বছর। সবশেষ চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে তিন-চারটি ম্যাচে ঠিকঠাক খেলতে পারিনি। সব মিলিয়ে যে সিরিজগুলো আগে খেলেছি- বিশ্বকাপ কিংবা হোম ও বিদেশ সফরে, আমার মনে হয় মোটামুটি ভালোই খেলেছি। তিন-চারটা ম্যাচ দিয়ে তাই একটা খেলোয়াড়কে  যাচাই-বাছাই করা যায় না।’ সাফল্যের পথটাই এখন খুঁজছেন তিনি, ‘আমি চেষ্টা করছি কিভাবে এখান থেকে বের হয়ে আসা যায়। যে ভুলগুলো হয়েছে, সেগুলো শুধরে পরবর্তী সিরিজে ফিরে আসার জন্য।’

ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক ২০১৪ সালে হলেও টেস্টে সুযোগ পেয়েছেন তিনি দুই বছর পর। ইতিমধ্যে ৬টি পাঁচদিনের ম্যাচ খেলে ফেলা সাব্বিরের চোখে টেস্ট ও ওয়ানডে ক্রিকেটের চ্যালেঞ্জে কোনও পার্থক্য নেই। তিনি কোনও ফরম্যাটকে আলাদাই করতে চাইলেন না, ‘এই পর্যায়ে ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটই অনেক কঠিন। আমি যদি একটাকে বেশি চ্যালেঞ্জ মনে করি, তাহলে বেশি চাপ মনে হবে। যে ফরম্যাটেই খেলি না কেন, সেটা লাল বল বা সাদা বল, নিজের খেলাটা ঠিকমতো খেলতে পারলে যে কোনও ফরম্যাটে ভালো খেলতে পারব।’

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>