গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে মওদুদের সেই বাড়ি

বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদকে গুলশানের বাড়ি থেকে উচ্ছেদের ১৮ দিন পর বাড়িটি গুঁড়িয়ে দিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-রাজউক। রোববার সন্ধ্যার মধ্যে বাড়িটি ভাঙার কাজ শেষ করে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ।
গুলশান থানার এসআই খান নুরুল ইসলাম জানান, রোববার সকাল ৮টার পর রাজউক কর্মীরা গুলশান এভিনিউয়ের ১৫৯ নম্বর হোল্ডিংয়ের ওই বাড়ি ভাঙা শুরু করেন। সন্ধ্যার আগে আগে সেই কাজ শেষ হয়।

রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওয়ালিউর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা আদালতের আদেশের পর বাড়ির দখল নিয়েছিলাম। সারা দিন কাজ করে বাড়িটি ভেঙে ফেলা হয়েছে।

চারটি বুলডোজার ও অন্যান্য যন্ত্রপাতি দিয়ে রাজউক কর্মীরা একতলা ওই ভবন ভাঙার কাজ করেন। জিনিসপত্র সরিয়ে নিতে সেখানে একটি ট্রাকও রাখা হয়।

সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে মওদুদ আহমেদ হেরে যাবার পর গত ৭ জুন অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ির নিয়ন্ত্রণ নেয়

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ।

সকালে রাজউক কর্মীরা কাজ শুরুর ঘণ্টা দুই পর ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াও ঘটনাস্থল ঘুরে যান। তবে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেননি।

বাড়ি ভাঙা শুরুর পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেন, আদালতের কোনো নির্দেশ নাই এবং কোনো নোটিসও নাই। যা করছে, সবই তারা গায়ের জোরে করছে। আইনের চাইতে এখন শক্তি বেশি কার্য্কর।

পরে মওদুদ আহমদ ৪৩টি জিনিসপত্রের একটি তালিকা দেখান, যেগুলো বাড়ি ভাঙার সময়ও ভেতরে ছিল বলে তিনি দাবি করেন।

মওদুদের দেখানো জিনিসপত্রের তালিকার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, আমরা ওইদিন (৭ জুন) সবকিছু সরিয়ে নিয়েছি। এখন ওখানে বিল্ডিং ছাড়া আর কিছু নেই। সব জিনিস তিনি বুঝে নিয়েছেন, তার বাসায় পৌঁছে দেয়া হয়েছে ৫১ নম্বর ও ৮৪ নম্বরের দুই বাড়িতে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>