চোখে কিছু পড়লে করণীয়

জুন ২৬ ২০১৭, ২২:৪৯

যখন বাইরের কোনো বস্তু আপনার চোখে প্রবেশ করে, আপনি তৎক্ষণাৎ তা জানতে পারেন। চোখে পাপড়ি, ধুলোকণা, কীটপতঙ্গ, ছোট ইটপাথর, কাঠ বা ধাতুর টুকরো প্রবেশ করলে খুবই বিরক্তিকর অবস্থা তৈরির সম্ভবনা থাকে। কেননা এটি না সরানো পর্যন্ত আপনি অন্য কোনো কিছুতে ফোকাস করতে সক্ষম হবেন না।

চোখ থেকে বাইরের কণা খুঁজে বের করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অন্যথায় ব্যথাদায়ক ছাড়াও আপনার চোখে মধ্যে থাকা বাইরের বস্তুটি চোখে ইনফেকশনের ঝুঁকিতেও আপনাকে ফেলতে পারে। তাই চোখে কিছু পড়লে কি করা উচিত (এবং উচিত নয়) তা জেনে রাখা জরুরি।

নম্র হওয়া
যখন বাইরের কিছু চোখে পড়ে, তখন স্বাভাবিক নিয়ম হচ্ছে চোখ কোচলান। যুক্তরাষ্ট্রের ওহিও স্টেটের ওয়েক্সার মেডিকেল সেন্টারের একজন অপ্টোমেট্রিস্ট (দৃষ্টি চিকিৎসক) র‌্যান্ডি ম্যাকলাফলিনের মতে, অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে ও খুবই মোলায়েম ভাবে চোখ কচলাতে হবে।

সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে প্রথমে চোখে পানি দিন। আর ‘নম্র হওয়া’ বলতে বোঝানো হয়েছে যে, আপনি যদি জোরে চোখ কচলাতে থাকেন তাহলে শেষ পর্যন্ত তা কর্নিয়ায় আচড়ের মাধ্যমে যন্ত্রণাদায়ক হতে পারে। এছাড়া চোখ থেকে বড় কোনো বস্তু অপসারণের চেষ্টা করাটা আপনার উচিত হবে না, যা বিদ্ধ অবস্থায় রয়েছে কিংবা ধারালো কিছু। এমন ক্ষেত্রে দ্রুত ডাক্তারের কাছে যেতে হবে।

চোখে পানি দেওয়া
ডা. ম্যাকলাফলিন বলেন, সাধারণত বেশিরভাগ কণা পরিষ্কার পানি দিয়ে চোখ ধুলে বেরিয়ে যায়। চোখে পানি দেওয়াটাই প্রাথমিকভাবে সবচেয়ে কার্যকরী উপায়। প্রয়োজনে পরিষ্কার পানি ভরা একটি

ড্রপার দিয়েও চোখে পানি দিতে পারেন।

চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন
ডা. ম্যাকলাফলিনের মতে, অনেকেই সবচেয়ে বড় যে ভুলটা করে তা হচ্ছে, চোখের মধ্যে পড়া বাইরের কোনো বস্তুকে দিনব্যাপী উপেক্ষা করা। ম্যাকলাফলিন বলেন, ‘আপনি যদি চোখে এখনও এটি অনুভব করতে পারেন এবং বের করতে না পারেন, তাহলে সম্ভবত আপনার একজন ডাক্তার দেখানো দরকার।’ চোখের মধ্যে একটি বাইরের ময়লা যত বেশি সময় থাকবে, সেই ময়লা কর্নিয়ায় ঘষা লেগে তত বেশি চোখের প্রভূত ক্ষতির ঝুঁকি বাড়াবে। তাই আপনার চোখের মধ্যে ভালোভাবে নজর দেওয়ার জন্য ডাক্তার বায়োমাইক্রোসকোপ (স্লিট ল্যাম্প নামেও পরিচিত) ব্যবহার করতে পারে কণা চোখের কোথায় আটকে আছে নাকি নেই, তা নিশ্চিতে।

এছাড়াও অবশ্যই আপনার দ্রুত ডাক্তারের কাছে যাওয়া উচিত যদি চোখে পড়া ময়লাটি পানি দিয়ে বের করার পরও চোখে ব্যথা কিংবা চোখ লাল হয়ে যাওয়ার ঘটনার সম্মুখীন হোন।

চোখে বিদ্ধ থাকা কণা ডাক্তার বের করে দেওয়ার পর চোখে ব্যথার মতো ঘটনা ঘটতে পারে, সেক্ষেত্রে আপনার চোখ যেন সংক্রমণ থেকে রক্ষা পায় সেজন্য অ্যান্টিবায়োটিকের পরামর্শ দিতে পারে ডাক্তার।

চোখ সুরক্ষিত রাখুন
ভবিষ্যতে আপনার চোখে যেন আবারও কিছু না পড়ে তা প্রতিরোধে নিরাপদ চশমা ব্যবহার করুন। গরমে যখন ঘরের বাইরে বের হবেন, তখন সানগ্লাস পড়ুন। এছাড়া আপনি যদি এমন পরিবেশে কাজ করে থাকেন যেখানে উড়ন্ত কণা স্বাভাবিক ব্যাপার উদাহরণস্বরূপ মাটি খোড়া সংক্রান্ত কাজ কিংবা কারখানায় কাজ, তাহলে নিরাপদ চশমা অবশ্যই জরুরি।

তথ্যসূত্র : হেলথ

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>