ছাত্রলীগের কর্মী সভা নিয়ে প্রানচাঞ্চল্য

আপডেট : March, 18, 2017, 9:31 pm

আমতলী প্রতিনিধিঃবরগুনার  আমতলী  উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের  কমিটি না থাকার কারনে    সংগঠনটির  সাংগঠনিক কার্যক্রমে ঝিমিয়ে পরেছিল ।এ কারনে জেলা ছাত্রলীগের  উদ্যোগে  আমতলী   উপজেলা পরিষদ  চত্ত্বরে আগামীকাল ১৯ মার্চ  কর্মী সভা আহবান করায়  উপজেলা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের  মধ্যে প্রানচাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে।  উল্লেখ্য আমতলী উপজেলায় ২০১৪  সালে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের  সভাপতি মো. ইমরান হোসেন রাসেল ফরাজী উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতাদের সুপারিশ ক্রমে আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের ৪১ সদস্য বিশিষ্ট একটি  আহবায়ক কমিটি অনুমোদন করেছিল ।   ঐ কমিটিতে মো. নুরুজ্জামান আহবায়ক  করে ৪১ সদস্য বিশিষ্ট আহবয়ক কমিটি অনুমোদন করেন । ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আহবায়ক কমিটি  উপজেলার সকল ইউনিট কমিটি গঠন করে উপজেলা কমিটির সম্মেলন আয়োজন করবেন। কিন্তু ২০১৪ সাল  থেকে  এই আহবায়ক কমিটি দিয়েই চলছে উপজেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রম ।  এ কমিটি   এক্টিভ না থাকায়  ছাত্রলীগের কার্যক্রম ঝিমিয়ে পড়ে।মাঠ পর্যায়ে ও কেন্দ্রীয় কর্মসূচীতে ছাত্রলীগের অগ্রণী ভূমিকা পালনের কথা থাকলেও আমতলীতে  কমিটি না থাকার  কারণে নেতাকর্মীরা কমসূর্চীতে তেমন দেখা যায়নি । বিপুল সংখ্যক ছাত্রনেতা দীর্ঘদিন ধরে পদ প্রত্যাশী হয়ে দলীয় কর্মকান্ডে সক্রিয় ভূমিকা রাখলেও দীর্ঘ দিন  ধরে

সম্মেলন না হওয়ায় তাদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে। একারণে সাধারণ কর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।ছাত্রলীগের  নেতৃত্বে আসার বয়সসীমা পেরিয়ে যাচ্ছে অনেক অবিবাহিত ছাত্রদের। দলের পদ প্রত্যাশী ত্যাগী অনেক ছাত্রনেতা তাদের কর্মীদের পিছনে ব্যাপক অর্থ ব্যয় করছে। শুধু তাই নয়, পদ পাবার আসায় শীর্ষ নেতাদের কাছে ধর্ণা দিচ্ছে অনেক ছাত্রনেতা।  তৃণমূল ছাত্রলীগ  নেতাকর্মীরা জানান, দলের ত্যাগী ও মাঠপর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথে যাদের সুসম্পর্ক রয়েছে তাদের মধ্য থেকে নেতৃত্ব দেয়া হোক।  বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সাধারন  সম্পাদক মো. তানভীর হোসেন  বলেন আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি না থাকায় সাংগঠনিক কাঠামো বলতে কিছুই নাই।  এ জন্য  নতুন কমিটি একান্ত ভাবে প্রয়োজন । কর্মী সভার পরেই নতুন কমিটির ব্যাপাওে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।  ছাত্রলীগের  পদ প্রত্যাশী কয়েকজন নেতা  নতুন কমিটির ব্যাপারে জেলা ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের  হস্থক্ষেপ কামনা করছেন।  এ প্রসঙ্গে বরগুনা জেলা  ছাত্রলীগ সভাপতি মো. জুবায়ের আদনান অনিক  বলেন    কর্মী সভার পরে সকলকে নিয়ে    সুন্দর ও গ্রহন যোগ্য কমিটি  দেয়া হবে।   এ কর্মী সভা কে কেন্দ্র করে তৃনমূল ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে  ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে।

Facebook Comments