ছাত্রীদের ইভটিজিংএ বাধা দেয়ায় দুই শিক্ষক লাঞ্ছিত!

ফেব্রুয়ারি ২৫ ২০১৭, ২১:৪৮

আমতলী প্রতিনিধিঃ বরগুনার  আমতলীতে ছাত্রীদের ইভটিজিংএ বাধা দেয়ায় সোহাগ গাজী (২০) নামে এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীর হাতে দুই শিক্ষক লাঞ্ছিত হয়েছেন। এ ঘটনায় ওই ছাত্রকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে শিক্ষক এবং বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সদস্যরা।

শনিবার সকাল সোয়া ১০ টার দিকে আমতলীর আঠারগাছিয়া ইউনিয়নের সোনাখালী স্কুল এন্ড কলেজে এ ঘটনাটি ঘটে।

আঠারগাছিয়া স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা জানান, শনিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে কলেজের মাঠে সকল ছাত্র-ছাত্রীরা পিটি শুরু করে। এসময় এই কলেজের মানবিক শাখার ২০১৭ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থী সোহাগ গাজী (২০) কলেজ ভবনের তৃতীয় তলায় উঠে  বারান্দায় দাঁড়িয়ে মাঠের ছাত্রীদের দিকে তাকিয়ে অশালীন অঙ্গভঙ্গী করা  শুরু করে।

বিষয়টি শিক্ষকদের নজরে এলে ইংরেজী বিষয়ের শিক্ষক মো. আজিমুুল ইসলামকে ওই ছাত্রের নিকট পাঠান। আজিমুল ইসলাম উপরে ওঠে ওই ছাত্রকে নিষেধ করা মাত্র তার জামার কলার ধরে টেনে হেচড়ে মাটিতে ফেলে কিল ঘুষি লাথি মারেন সোহাগ। সহকারী শিক্ষককে মারধরের খবর পেয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক জাহিদুল ইসলাম উদ্ধার করতে এগিয়ে গেলে তাকেও সোহাগ লাঞ্ছিত করে।

এসময় ছাত্র ও শিক্ষকরা মিলে বখাটে ছাত্র সোহাগ গাজীকে আটকে রেখে বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সহ-সভাপতিসহ সকলকে জানালে তারা ছুটে

এসে  সোহাগ গাজীকে দুপুর ১২ টার দিকে গাজীপুর পুলিশ ফাড়ির সদস্যদের হাতে তুলে দেন।

কলেজের ইংরেজী বিষয়ের সহকারী শিক্ষক আজিমুল ইসলাম তাকে লাঞ্ছিত করার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সোহাগ গাজীকে আমি অশালীন অঙ্গ ভঙ্গি করতে নিষেধ করা মাত্র আমাকে জামার কলার ধরে মার ধর শুরু করে। খবর পেয়ে অন্য শিক্ষরা এসে আমাকে উদ্ধার করে।

বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সহ-সভাপতি ফজলুল হক মোল্লা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে আমি কলেজে উপস্থিত হয়ে বখাটে সোহাগ গাজীকে গাজিপুর ফাঁড়ির পুলিশের হাতে তুলে দেই। গাজীপুর পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন জানান, বখাটে সোহাগ গাজীকে আটক করে আমতলী থানায় পাঠানো হয়েছে।

বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক জাহিদুল ইসলাম জানান, ছাত্রীদের দিকে তাকিয়ে সোহাগ গাজী অশালীন অঙ্গভঙ্গী বন্ধ করার জন্য সহকারী শিক্ষক আজিমুলকে পাঠালে তাকে জামার কলার ধরে মার ধর করে। খবর পেয়ে আমি উদ্ধার করতে গেলে সোহাগ আমাকেও লাঞ্ছিত করে। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি  চলছে বলেও জানান তিনি।

সোনাখালী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. গোলাম মোস্তফা জানান, আমি ছুটিতে আছি। এবিষয়ে আমি কিছু জানিনা।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সহিদুল্লাহ জানান, বখাটে সোহাগ গাজীকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>