জলাবদ্ধতায় কুয়াকাটার রাখাইন মার্কেটের মাঠ,পরিণত হয়েছে দিঘীতে

আপডেট : July, 26, 2017, 8:42 pm

কলাপাড়া প্রতিনিধিঃ পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার রাখাইন মহিলা মার্কেটের মাঠটি বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। কয়েক দিনের বৃষ্টির পানিতে এ মাঠটি এখন টইটুম্বর হয়ে আছে। দেখে মনে হয় যেন এটি একটি বিশাল আকারের কোন দিঘী কিংবা পুকুর। প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমেই রাখাইন মহিলা মার্কেটের মাঠটি পানিতে তলিয়ে থাকে। পানি নিষ্কাশনের কোন ব্যবস্থা না থাকায় দুর্গন্ধের পাশাপাশি মশার সৃষ্টি হয়। এর ফলে মার্কেটের ব্যবসায়িরা তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে রেখেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

স্থানীয় ও মার্কেটের ব্যবসায়িদের সূত্রে জানা গেছে, ওই মাঠের চারদিকে বিভিন্ন বস্ত্র বিপণী, রাখাইন সম্প্রদায়ের মন্দির ও আবাসিক হোটেল রয়েছে। প্রতিদিন বিকেলে কিংবা সন্ধ্যার পর পর্যটকরা ওই মাঠে বসে বাড়তি সময় কাটাতো। এছাড়া বিভিন্ন সময় রাখাইন কালচারাল অনুষ্ঠান এ মাঠে হয়ে থাকে। বর্তমানে বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতায় মাঠটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।
রাখাইন মার্কেটের ব্যবসায়ি জাহিদুল ইসলাম সুমন জানান, বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। এর কোন সুফল পাইনি। এছাড়া পানি জমে থাকার কারনে

অনেক মশার সৃষ্টি হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
কুয়াকাটায় ভ্রমণে আসা রাসেল কবির জানান, এখানে মাঠ নয়, এটি দেখে মনে হচ্ছে বড় কোন দিঘী কিংবা পুকুর হবে। এ পানি অপসারন করা দরকার বলে তিনি জানান।
রাখাইন মাঠ সংলগ্ন ব্যবসায়ী চিংচাথন জানান, একটু বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধ সৃষ্টি হয়। পানির দুর্গন্ধে এ মার্কেটে পর্যটকরা আসছেনা। তাই আমাদের দোকান অধিকাংশ সময় বন্ধ করে রাখতে হয়।
কেরানীপাড়ার অধিবাসী মংসেচিন জানান, এ মাঠে জলকেলি উৎসবসহ বাংঙ্গালিদের অনেক সাংস্কতিক অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। এ জলাবদ্ধতা নিরসন দরকার। প্রশাসন এ ব্যাপারে এগিয়ে আসছে না।
কুয়াকাটা পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো.সাজেদুল আলম জানান, পৌরসভার মাত্র হাফ কিলোমিটার ড্রেন রয়েছে। জরুরী ভিত্তিতে আড়াই কিলোমিটার ড্রেন নির্মানের উদ্দোগ নেয়া হয়েছে। এছাড়া আরও ৫ কিলোমিটার ড্রেন নির্মান কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।
কুয়াকাটা পৌর মেয়র আব্দুল বারেক মোল্লা জানান, শীঘ্রই পানি নিষ্কাসনের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আশা করি দুই এক দিনের মধ্যে এ পানি সরে যাবে বলে তিনি জানান।

Facebook Comments