জাতির জনকের ছবি বিকৃত করায় ইউএনও’র বিরুদ্ধে মানহানী মামলা

বরিশাল জেলার আগৈলঝাড়ার উপজেলার সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার গাজী তারিক সালমান কর্তৃক স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ছবি বিকৃর্ত করার অপরাধে বরিশাল চীফ মেট্রোপলিটন মেজিস্ট্রেট অমিত কুমার দে’র আদালতে মানহানীকর মামলা দায়ের করেছে বরিশাল আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ত্র্যাডভোকেট সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু। গতকাল দুপুরে বিজ্ঞ চীফ মেট্রোপলিটন মেজিষ্ট্রেট অমিত কুমার দে’র আদালতে হাজির হয়ে ত্র্যাডভোকেট সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু বাদী হয়ে মামলার অভিযোগে বলেন আসামী ত্রকজন সরকারের প্রদস্থ কর্মকর্তা সত্বেও দায়ীত্ব অবহেলা পূর্বক স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০১৭ পালন উপলক্ষে আগৈলঝাড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হিসাবে দায়ীত্ব পালন কালে নিমন্ত্রন পত্র ছাপান। নিমন্ত্রন পত্রে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ছবির মুখবয় সঠিক ভাবে অংকন না করে নিমন্ত্রন পত্রের প্রথম পাতায় না ছেপে শেষের পাতায় ছাপান। উক্ত নিমন্ত্রন পত্র গুলো স্থানীয় এলাকাবাসীর কাছে পৌছানো হলে নিমন্ত্রন পত্র পাঠের পরে ত্রবং জাতির জনকের ছবি দেখে সকলেই নির্বাহী অফিসার গাজী তারিক সালমানের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পাঠানো নিমন্ত্রন পত্র সাংবাদিকদের হাতে পৌছালে সাংবাদিকরা বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর বিকৃত

ছবি প্রকাশ করেন। বাদী আরো অভিযোগ করেন নির্বাহী অফিসার হিসাবে যোগদান করার পর থেকে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের অসম্মান করা ছিল তার অভ্যাস। কোন জাতীয় দিবসে জাতীর জনকের ছবি কেউ ব্যাবহার করলে তা কার্ডের প্রথম পাতায় ব্যাবহার করা হয়। কিন্তুু আসামী অবহেলা করে জাতির জনকের প্রতি কোনরুপ শ্রদ্ধা সম্মান না দেখিয়ে ছবিটি সঠিকভাবে অংকন না হওয়া সত্বেও উক্ত আমন্ত্রন পত্রে ব্যাবহার করেন এবং বঙ্গবন্ধুর ছবি ইচ্ছাকৃত ভাবে বিকৃত করেন। গত ৪-৬-১৭ তারিখে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ার পর বাদী এডভোকেট ওবায়েদ উল্লাহ সাজু সহ সাক্ষিারা মর্মাহত হন বলে দাবী করেন। যেহেতু আসামী বঙ্গবন্ধুর ছবি অসম্মান করে ত্রবং যাহা আমন্ত্রন পত্রে মুদ্রিত ও খোদাই করে ছেপে দন্ড বিধি আইনে ৫০১ ধারার অপরাধ সংঘটিত করার অপরাধে ৫ কোটি টাকার মানহানীকর মামলা দায়ের করেন। মামলার শুনানী শেষে বিজ্ঞ চীফ মেট্রোপলিটন মেজিষ্ট্রেট অমিত কুমার দে আসামী তারিক সালমানের বিরুদ্বে সমন জারী করেন। আগামী ১৭ই জুলাই আদালতে হাজির হওয়ার আদেশ জারী করেন। তারিক সালমান বর্তমানে বরগুনায় কর্মরত আছেন। বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃত করার সংবাদ জাতীয় ও স্থানীয় পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হলে আগৈলঝাড়া থেকে বরগুনায় বদলি করা হয়েছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>