জীবনের কঠিন সময়গুলো পার করবেন যেভাবে

মে ১০ ২০১৭, ২২:১৭

জীবনের অর্থই হচ্ছে একটি যাত্রা। যে যাত্রাপথে আপনার সাথে হাজার মানুষের দেখা হবে, কথা হবে, আপনার সাথে বন্ধুত্ব হবে আবার তা চোখের পলকে ভেঙেও যাবে। জীবনের এই সময়ের সবটুকু পথই সুন্দরভাবে কাটবে তা কিন্তু নয়। কারণ আপনি খারাপ সময়ের দেখা না পেলে সুখের মূল্য বুঝবেন না। তেমনি জীবন পথে অতিবাহিত হওয়া কঠিন সময় আপনার সংস্পর্শে না এলেও আপনি ভেতর থেকে কতটা আত্মবিশ্বাসী আর নিজের প্রতি আস্থা রাখতে পারেন তাও বুঝে উঠতে পারবেন না। কঠিন সময় কখন আসবে তা যেমন কেউ জানেনা তেমনি সেই সময়ে কী করতে হবে তা নিয়েও অনেকে অনেক কিছু ভাবেন। কেউ ভাবেন এই সময় আর শেষ হবার না। নিজের প্রতি নিজের এই কম আত্মবিশ্বাস আপনার জেতা বাজিটাও মাঝে মাঝে হারিয়ে দেয়। তাই জীবনের এই বহমান ধারার মাঝে যখনি কঠিন সময় আসবে তখনি নিজের প্রতি আরও বিশ্বাসী হয়ে উঠুন। আর বলুন যে খারাপ সময় যেমন যাচ্ছে তেমনি ভালো সময় খুব সহজেই আসবে। জীবনের চরম মুহূর্ততেও ঠান্ডা মাথায় নেওয়া সিদ্ধান্ত দিয়ে এই কঠিন সময়গুলো পার করা যায়।

সব সময় একইরকম থাকবে না
এটি হওয়া উচিৎ আপনার এই কঠিন সময়ে চলার মূল মন্ত্র। এই ছোট একটি কথা আপনাকে নানাভাবে কঠিন সময়ে টিকিয়ে রাখতে সাহায্য করবে। পরিবর্তনকে ভয় পাবেন না। তাকে আপনার জীবনে আসতে দিন। কারণ এই পরিবর্তনই কেবল আপনাকে এই কঠিন সময় থেকে উদ্ধার করতে পারে। সময়ের পরিবর্তন কেবল বাহ্যিক পরিবর্তন আনে না পাশাপাশি আনে মনে, চিন্তাশক্তিতে আর দৃষ্টি ভঙ্গিতেও। যা আপনাকে জীবনের কঠিন সময়েও ভালো কিছুর জন্য তৈরি করবে।

শিক্ষা নেওয়া
আপনি আপনার জীবনের কঠিন সময় পার করার জন্য যা যা করছেন তা আপনাকে যেমন জীবন সম্পর্কে ধারণা দিচ্ছে তেমনি করছে মানসিকভাবেও দৃঢ় করছে। জীবনের বাজে সময়ে আমরা ভাবি আসলেই কি এটি আমার প্রাপ্য ছিলো! আমি

কি আসলেই এর জন্য উপযুক্ত ছিলাম! আমার ভাগ্য কি এতোই খারাপ! আসলে জীবনে এসব প্রশ্ন একটি অংশ। আপনি আপনার শরীরের কোনো অংশ ছাড়া যেমন চলতে পারবেন না, তেমনি এই প্রশ্নগুলো ছাড়া আপনি বুঝবেন না আসলে জীবনের অর্থ কী! তাই সময়ের দাবিতে আসা বাজে সময়কেও সুন্দরভাবে গ্রহণ করে তাকে পার করার সময় আপনার মাধ্যমে করা কাজ থেকে শিক্ষা নিন।

Jibon

সাহায্য
জীবনে কোনো সমস্যা হলে আপনি প্রথমেই যা করেন তা হচ্ছে তার থেকে নিজেকে টেনে তুলতে একা একা অনবরত চেষ্টা করে যান। এটি না করে সমস্যা কেন সৃষ্টি হয়েছে তা লক্ষ করুন। আর সমাধানের জন্য সাহায্য চান। এই অন্যের থেকে পাওয়া ছোট একটি সাহায্য আপনাকে মনে মনে এটা ভাবতে সাহায্য করবে যে আপনি একা নন। আপনার আশেপাশে আপনার সমাজ আর আপনাকে পছন্দ করে এমন মানুষ আছে। এটি আপনার আত্মবিশ্বাস বাড়াতে দারুণ কাজ করে।

ক্ষমা করতে এবং ক্ষমা চাইতে শিখুন
জীবনের এই যাত্রা পথে আপনাকে ক্ষমা করা এবং ক্ষমা চাওয়া এই দুটি জিনিস শিখতে হবে। যার সাহায্যে আপনি এই কঠিন সময় পার করতে পারবেন। কিছু সময় আমাদের সাথে খারাপ কিছু ঘটলে যাকে দ্বারা ঘটে তাকে নানাভাবে দোষ দিতে থাকি আর কষ্ট পাই। কিন্তু আপনি যদি খেয়াল করেন তবে দেখবেন তাতে আপনার ভালোও লুকিয়ে আছে। তাই ক্ষমা করুন তাকে, যে মানুষটি আপনাকে কষ্ট দিচ্ছে। তাহলে দেখবেন নিজের মাঝেই কেমন প্রশান্তি অনুভব করছেন।

আজকের দিনটিকে ঘিরে বাঁচুন
আগামিকাল আপনার জীবনে কী ঘটতে যাচ্ছে তা কেউ যানে না। তারপরেও এই অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ নিয়ে আমাদের কল্পনার শেষ নেই। আর এই কল্পনা মাঝে মাঝে গিয়ে দাঁড়ায় চিন্তা আর জীবনকে কঠিন করার মাধ্যম। তাই আপনি ঠিক যে দিনটিতে অবস্থান করছেন সেই দিনটি মন ভরে উপভোগ করুন। দেখবেন কঠিন সময় আর আপনার কাছে কঠিন লাগছে না।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>