ঝালকাঠিতে পুলিশ সুপারের উদ্যোগে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন

আপডেট : June, 17, 2017, 6:50 pm

কে এম সবুজ, ঝালকাঠি ॥ঝালকাঠিতে আইন-শঙ্খলা ও মাদক নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ক্লোজসার্কিট (সিসিটিভি ক্যামেরা) ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। শহরের সরকারি-বেসরকারি অফিস এলাকাসহ পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলো ১২৪টি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়। ইতোমধ্যে এ ক্যামেরার মাধ্যমে শহরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। ঝালকাঠির পুলিশ সুপার মো. জোবায়েদুর রহমানের উদ্যোগে স্থাপন করা এসব ক্যামেরার ফুটেজ তদারকি করবে পুলিশ। চুরি-ডাকাতি, মাদক কেনাবেচা ও দুর্ঘটনা ঘটলে সিসিটিভির মাধ্যমে নজরদারি করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।
মো. জোবায়েদুর রহমান বলেন, আমরা ঝালকাঠি ও নলছিটি পৌরসভাকে সিসিটিভির আওতায় নিয়ে এসেছি। ঝালকাঠির চার উপজেলাতেই সিসিটিভি স্থাপন করা হবে। ইতোমধ্যে ঝালকাঠিতে ১২৪টি সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। এ কার্যক্রম আরো এগিয়ে নিতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। সিসিটিভির ফলে ঝালকাঠিতে এক সময় চুরি ডাকাতিসহ সবধরণের অপরাধ বন্ধ হয়ে যাবে।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) এম এম মাহামুদ হাসান বলেন, আমাদের দক্ষ পুলিশ সুপার স্যারের উদ্যোগে

জেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত ১২৪টি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়। পুলিশ সুপার মো. জোবায়েদুর রহমান স্যারের পরিকল্পনায় ঝালকাঠি থেকে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, চুরি-ডাকাতি রোধ করতে সিসিটিভি স্থাপন ইতোমধ্যেই প্রশংসা পেয়েছে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে। আশাকরি সকল অপরাধ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ সুপারের এ ধরণের উদ্যোগ আরো বেগবান করা হবে।
এদিকে শুক্রবার বিকেলে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু প্রধান অতিথি হিসেবে নলছিটিতে সিসিটিভি ক্যামেরার উদ্বোধন করেন। ক্যামেরার নিয়ন্ত্রণ কক্ষ নলছিটি পৌরসভায় এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন তিনি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রীর সাথে ছিলেন ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার মো. শাহ আলম, সাধারণ সম্পাদক খান সাইফুল্লাহ পনির, নলছিটি পৌর মেয়র তছলিম উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইউনুস লস্কর, ঝালকাঠির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) এম এম মাহামুদ হাসান, নলছিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফুল ইসলাম ও নলছিটি থানার ওসি এ কে এম সুলতান মাহামুদ।

Facebook Comments