তরমুজ খাওয়ার পর পানি পান কি উচিৎ?

এপ্রিল ২১ ২০১৭, ১০:৩৫

চলছে তরমুজের মৌসুম। এই সুমিষ্ট ফলে শহর গ্রামের বাজোর এখন সবুজময়। পানিতে ভরপুর এই ফলে আছে অনেক স্বাস্হ্যকর উপাদান। ম্যাক্রোবায়োটিক পুষ্টিবিজ্ঞানী ও স্বাস্হ্যবিদ সিল্পা আরোরা বলেন, তরমুজে লাইকোপেন, পটাশিয়ামসহ অন্যান্য পুষ্টিগুন বহন করে। এছাড়া তরমুজে আছে ফাইবার যা হজম প্রকৃয়া সচল রাখে।

ডিকে পাবলিশিং হাউজের বই ‘হিলিং ফুডস’ এর তথ্য অনুযায়ী সিট্রালাইন নামক গুরুত্বপূর্ণ এমিনো এসিড পাওয়া যায় যা নাইট্রিক এসিড তৈরির প্রকৃয়াকে উদ্দীপ্ত করে এবং এই নাইট্রিক এসিড রক্তের চাপ ও প্রবাহকে সচল রাখে।তাই নি: সন্দেহে আপনি আপনার খাদ্যতালিকায় এই ফল রাখতে পারেন জুস কিংবা সালাদ হিসাবে।

তবে এসব গুনের সাথে তরমুজকে জড়িয়ে আছে কিছু মিথ। যেখানে বলা হয়েছে, অনেকেই পরামর্শ দেন তরমুজ খাওয়ার পর পানি পান না করার। অনেকে মনে করেন, তরমুজে শতকরা ৯৬ ভাগ পানি আছে যার ফলে এটি খাওয়ার পর আর বাড়তি পানি পানের প্রয়োজন নেই কারণ এর ফলে হজম প্রকৃয়া বাধাগ্রস্হ হতে পারে। কিছু বিশেষজ্ঞ মনে করেন, তরমুজ যেহেতু প্রায় পুরোটাই ফলশর্করা (পানি ও সুগারের অংশ)তাই বাড়তি পানি গ্রহন পাকস্থলীতে সংক্রমণ ঘটাতে পারে।
আয়ুর্বেদিক

চিকিৎসকগণের পরামর্শ; শুধু পানি নয় তরমুজের সাথে অন্য কোন খাদ্য গ্রহনও না করা। তিনি বলেন, অন্য খাবারের সাথে তরমুজ খেলে তা হজম ও শোষণ প্রকৃয়াকে বাধাগ্রস্হ করে এবং এসিডিক সমস্যাকে উষ্কে দেয়।

তিনি যোগ করেন, কারো কারো ফল গ্রহনের পর পানি পান করলেও একই সমস্যা হতে দেখা যায়। তাই এটাই সর্বউত্তম, ফল গ্রহনের পর পানি পান না করা। তবে তরমুজের সাথে পানির এই বিপরীতমুখীতার পর্যাপ্ত বৈজ্ঞানিক প্রমান পাওয়া যায়নি এখনো।

সিল্পা আরোরার মতে, যেহেতু তরমুজ নিজেই পানিতে ভরপুর তাই বাড়তি পানি গ্রহন অযৌক্তিক। অন্যদিকে আয়ুর্বেদিক চিকিৎসক ডা: ভাসান্ট লাড সকল প্রকার তরমুজ জাতীয় ফল গ্রহনের পর পানি পরিহারের পরামর্শ দেন।

ব্যঙ্গলরের পুষ্টিবিদ ডা: আনজু সুদও একই পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, এটা আপনার গ্যাষ্ট্রিক জাতীয় সমস্যার কারন হতে পারে। কারন জীবানু ও ব্যাক্টেরিয়ার উপস্থিতির জন্য পানি ও সুগারের প্রয়োজন। তাই তরমুজ খাওয়ার পর পানি গ্রহন গ্যাষ্ট্রিকের সম্ভবনা বাড়িয়ে দিতে পারে।

যাই হোক এসব সত্য অথবা মিথ্যা তরমুজ গ্রহনে কোন বাধা নেই। তরমুজ খান মন খুলে তবে তরমুজ খাওয়ার পর যথাসম্ভব পানি এড়িয়ে যান!

Facebook Comments