দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক

আপডেট : February, 26, 2017, 2:47 pm

দলের সেরা ব্যাটসম্যান। দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার কঠিন ভারটাও তাঁর কাঁধে। উইকেট কিপিংয়ের গ্লাভসটা পরেও মাঠে নামতে হয় মুশফিকুর রহিমকে। এমন ত্রিমুখী চাপে যেকোনো মুহূর্তেই ভেঙে পড়তে পারেন অধিনায়ক। তবে মুশফিক এতেও পিছপা নন, দলের ভালোর জন্য সবকিছু করতে প্রস্তুত। দরকার হলে বোলিংও করবেন মুশফিক!

ইদানীং মুশফিকের উইকেট কিপিং নিয়ে প্রশ্ন উঠছে বারবার। ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তাঁর কিছু ভুল তো ম্যাচের গতি পাল্টে দিয়েছে। তাই কথাও উঠে গেছে, কিপিংটা কি আসলেই আর উপভোগ করতে পারছেন কিনা। মুশফিক অবশ্য সে সব কথাবার্তা উড়িয়ে দিচ্ছেন, আবার এটাও বলছেন দল যেটা ভালো মনে করে সেটাই করবেন, ‘উপভোগ করি তো অবশ্যই। আমার তো বোলিংও করতে ইচ্ছে করে তাতে যদি দলের আরেকটু কাজে দেয়। এটা সিদ্ধান্ত নেবে কোচ, টিম ম্যানেজমেন্ট ও বিসিবি। তারা যা ভালো মনে করবে সেটাই করবে। আমার চিন্তা করতে হবে দলে কোনটাতে বেশি অবদান রাখতে পারি। আমি মনে করি ব্যাটসম্যান ও উইকেটকিপার হিসেবে আমি দলে অবদান রাখছি।’
কিন্তু কিপিংয়ে নিজের মানটা তো ধরে রাখতে পারছেন না অধিনায়ক। মাঝে মাঝেই ভুল হচ্ছে তাঁর। ভারতের বিপক্ষে কিছু কিছু মুহূর্ত তো ভুলে যেতে চাইবেন মুশফিক। তবে এর পেছনে যুক্তি

আছে তাঁর, ‘ভুল তো সবাই করে থাকে। বিশ্বে এমন কোনো উইকেটকিপার নেই যে ভুল করে না। আমার চোখে দেখা সাহা (ঋদ্ধিমান) এখন সেরা উইকেটকিপার। ওর সবকিছুই অনুসরণ করার চেষ্টা করি। ইংল্যান্ড ও আমাদের সঙ্গে সে মিস করেছে। রিয়াদ ভাইয়ের (মাহমুদউল্লাহ) ওই স্টাম্পিংটা মিসের পর যদি ম্যাচটা ড্র করে ফেলত তখন অন্যরকম দৃশ্য হতো। শুধু আমি নয়, দলের সবাই শতভাগ চেষ্টা করে দলে অবদান রাখতে। অনেক সময় এটা হয়, অনেক সময় হয় না।’
অধিনায়ক হিসেবে শুধু নিজেকে নিয়ে পড়ে থাকলে তো চলবে না, দল নিয়েও ভাবতে হয় তাঁকে। অধিনায়ক হিসেবে অবশ্য বেশ আত্মবিশ্বাসী মুশফিক। নিজেদের বোলিং আক্রমণকে অনভিজ্ঞ বললেও, এঁদের দিয়েই ম্যাচ জয়ের আশা তাঁর, ‘আমাদের বোলাররা অনভিজ্ঞ। যত খেলবে তত শিখবে। তারা কিন্তু অনেক সুযোগ তৈরি করছে। সেগুলো কাজে লাগাতে না পারলে ভালো করা কঠিন। তবে আমার বিশ্বাস আছে, বোলিং আক্রমণ এবার ভালো হবে। অধিনায়ক হিসেবে বলব, শক্তিশালী বোলিং আক্রমণ নিয়েই যাচ্ছি। মোস্তাফিজ-মিরাজ-সাকিব সেরাটা দিতে পারলে যেকোনো ব্যাটসম্যানের জন্য কঠিন হবে। যে বোলিং আক্রমণ এবার যাচ্ছে আমি আশাবাদী। সব সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে ফল আমাদের পক্ষে আসবে। ২০ উইকেট নেওয়া অবশ্যই সম্ভব।’

Facebook Comments