ধূমপান নিরুৎসাহিত করতে বিড়ি সিগারেটে বাড়তি সম্পূরক শুল্ক

জুন ০১ ২০১৭, ১৭:০৯

ধূমপান নিরুৎসাহিত করতে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সিগারেট, বিড়ি ও ধোঁয়াবিহীন তামাকের সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। বাজেট প্রস্তাবে নিম্ন মূল্য স্তরের দেশীয় ব্র্যান্ডের সিগারেট প্রতি ১০ শলাকার মূল্য বিদ্যমান ২৩ টাকা হতে বৃদ্ধি করে ২৭ টাকা নির্ধারণ এবং সম্পূরক শুল্ক হার ৫০ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে ৫২ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে নিম্ন মূল্য স্তরের আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের সিগারেটের ক্ষেত্রে বর্তমানে পৃথক কোনো মূল্যস্তর না থাকায় প্রতি ১০ শলাকার মূল্য ৩৫ টাকা নির্ধারণসহ সম্পূরক শুল্ক ৫৫ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া ৪৫ টাকা বা তদূর্ধ্ব মূল্যে বিদ্যমান মধ্যম ও উচ্চমূল্য স্তরের সিগারেটের ব্র্যান্ডগুলোর জন্য কোনো মূল্য নির্ধারণ না করে মূল্য নির্ধারণের
বিষয়টি উৎপাদকের ইচ্ছাধীন রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে।
বিড়ির বিদ্যমান ট্যারিফ মূল্য বিলুপ্তির পাশাপাশি ফিল্টারবিহীন ও ফিল্টারযুক্ত বিড়ির ক্ষেত্রে সম্পূরক শুল্ক ৩০ শতাংশ ও ৩৫ শতাংশতে কোনো পরিবর্তন করা হয়নি। তবে করসহ ফিল্টারবিহীন ২৫ শলাকার প্যাকেটের মূল্য ১৫ টাকা নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে। এই মূল্য ১ জুন ২০১৭  থেকে কার্যকর হবে।
অন্যদিকে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর বিড়ি-সিগারেটের মত ভয়াবহ আর একটি নতুন উদ্ভাবিত পণ্য ই–সিগারেট। বর্তমানে এই পণ্যটির শুল্কহার ১০ শতাংশ। অন্যদিকে সিগারেটটি সেবনের জন্য রিফিল প্রয়োজন হয় যার শুল্কহারও ১০ শতাংশ। এছাড়া দুটি পণ্যের এইচএস কোড নির্ধারণপূর্বক আমদানি শুল্কহার ২৫ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে বাজেটে। পাশাপাশি দুটি পণ্যের উপর ১শ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপেরও প্রস্তাব করা হয়েছে।
Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>