নগরীতে ‘জয়বাংলা’ স্নোগান দিয়ে পুলিশের ওপর শিক্ষার্থীদের হামলা

মে ২৪ ২০১৭, ২১:৪৬

অপহরণের পর ছাত্রাবাসের একটি কক্ষে নিয়ে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি ও নির্মমভাবে নির্যাতনসহ হত্যা চেষ্টার সময় বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ইলেক্ট্রনিক্স বিভাগের ছাত্র দীপ কুমার পালকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার বিকেল ৩টার দিকে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ক্যাম্পাসের প্রধান ছাত্রাবাসের ৫ম তলার ৫০১ নম্বর কক্ষ থেকে অপহৃত ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধারের সময় ‘জয়বাংলা’ শ্লোগান দিয়ে পুলিশের উপর হামলা চালায় কতিপয় উচ্ছৃঙ্খল কিছু  শিক্ষার্থী। এতে কোতয়ালী মডেল থানার কনস্টেবল (নং-১৪১৪) হাবিবুর রহমান গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পরে ২৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ৩টি ধারালো অস্ত্রসহ বেশ কিছু সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের সনাক্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন পুলিশের কর্মকর্তারা।

অপহরণের পর নির্যাতনের শিকার দীপ কুমার পাল জানান, ৭ম সেমিস্টারের পরীক্ষা দিতে নিজ বাড়ি টাঙ্গাইল থেকে সড়ক পথে বুধবার ভোরে তিনি নগরীর নথুল্লাবাদ কেন্দ্রিয় বাস টার্মিনালে পৌঁছেন। সেখানে কাকতালীয়ভাবে পলিটেকনিকের কথিত ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান ফাহিমের সাথে তার দেখা হয়। এরপর ফাহিম তাকে অপহরণ করে ক্যাম্পাসের প্রধান ছাত্রাবাসের ৫ম তলার ৫০১ নম্বর কক্ষে আটকে বৈদ্যুতিক শক দেয় এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে নির্যাতন করে। এমনকি তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে

গলা কেটে হত্যার উদ্যোগ নেয় ফাহিমসহ অন্যান্যরা।

হামলার ঘটনার পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২৫ জনকে আটক করে পুলিশ।

ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে প্রতিপক্ষের মিছিল-মিটিংয়ে না যাওয়ায় তাকে নির্যাতন করা হয়েছে এবং এ ঘটনায় অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির দাবি করেন দীপ।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে অপহৃত ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করতে যায় পুলিশ। এ সময় শিক্ষার্থীরা পুলিশকে ছাত্রাবাসে ঢুকতে বাধা দেয়। পরে ছাত্রাবাসের ৫ম তলার ৫০১ নম্বর কক্ষ থেকে অপহৃত দীপ কুমার পালকে উদ্ধার এবং ধারালো অস্ত্রসহ বেশ কিছু সরঞ্জাম উদ্ধার করে বেরিয়ে আসার সময় ‘জয়বাংলা’ শ্লোগান দিয়ে অতর্কিতে পুলিশের উপর হামলা চালায় উচ্ছৃঙ্খল কিছু শিক্ষার্থী। হামলায় কোতয়ালী মডেল থানার কনস্টেবল হাবিবুর রহমান গুরুতর আহত হয়। তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এ ঘটনার পর পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২৫ জনকে আটক করে। এরা সকলেই ছাত্র নাকি এর মধ্যে বহিরাগতও আছে তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ।

এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (কোতয়ালী) মো. আসাদুজ্জামান। তবে আটককৃতরা নিজেদের নির্দোষ দাবি করেছেন।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>