নির্মাণাধীন লঞ্চে আগুন: ডকইয়ার্ডের অনুমোদন নিয়েই সন্দেহ

জুন ০৯ ২০১৭, ১১:৪৩

এডভেন্সার ৬ লঞ্চটির ৯০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। ঈদের আগেই লঞ্চ দুটি বরিশাল-ঢাকা নৌপথে চলাচল শুরু করার কথা ছিল।

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া খেয়াঘাটের দক্ষিণ প্রান্তে ক্যাটারম্যান টাইপের অ্যাডভেঞ্চার-৬ নামে নির্মাণাধীন লঞ্চে আগুন লাগার ঘটনায় ডকইয়ার্ডের অনুমোদন নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

জাহাজ চলাচল অধিদফতরের ( ডিজি শিপিং) বরিশাল অফিসের পরিদর্শক নুরুল করিম জানান, জাহাজটির সার্ভে এবং ট্রায়াল না-হওয়ায় এটি এখনও নৌযান হিসেবে নিবন্ধিত হয়নি। তাই এ ব্যাপারে তারা এখনও কোনও তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়নি। নির্মাণাধীন জাহাজটি অনুমোদিত বৈধ ডকইয়ার্ডে নির্মিত হচ্ছিল কিনা, সে ব্যাপারে কাগজপত্র জমা দিতে বলা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে জাহাজ মালিক কর্তৃপক্ষ তা জমা দেবেন বলে তাদেরকে জানিয়েছেন।

তবে তিনি স্বীকার করেন এতো বড় জাহাজ নির্মাণের জন্য বৈধ ডকইয়ার্ডে কঠোর নিরাপত্তা, উন্নত অগ্নি-নির্বাপন ব্যবস্থা থাকা প্রয়োজন।

এদিকে নির্মাণাধীন এই লঞ্চটিতে আগুন লাগার ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সহকারী পরিচালক আবুল কালামের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের কমিটিকে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন মাস্টার মো. আলাউদ্দিন এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, অ্যাডভেঞ্চার-৬ নামে লঞ্চটিতে আগুন লাগার সময় এর পেছনেই অ্যাডভেঞ্চার-৫ ও পাশে দিবা সার্ভিসের ৩ শত ফুট দৈর্ঘ্যের একটি লঞ্চ ছিল। দ্রুত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব না হলে আরও বেশি ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা

ছিল।
অন্যদিকে বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি শেখ মুহাম্মদ মারুফ হাসান জানান, ঝালকাঠি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সদর সার্কেল) এম এম মাহমুদ হাসানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিাট করে যত দ্রুত সম্ভব রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (৬ জুন)রাত সাড়ে ৮টার দিকে অ্যাডভেঞ্চার-৬ নামে লঞ্চটিতে আগুন লাগার ঘটনায় ওই লঞ্চের আসবাবপত্রসহ ভেতরে থাকা সব মালামাল পুড়ে যায়। ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত অ্যাডভেঞ্চার-৬ লঞ্চের সব জায়গায় আগুন ছড়িয়ে প্রায় সবকিছুই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

পরে ডকের কর্মী, স্থানীয় বাসিন্দা ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহায়তায় দুই ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এসময় আগুন নেভাতে গিয়ে স্থানীয় বেশ কয়েকজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়।

নিজাম শিপিং লাইন্সের কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির জানান, দিনের বেলায় নদী পথে চলাচলের জন্য নিজাম শিপিং লাইন্সের অ্যাডভেঞ্চার-৫ ও ৬ নামে দুটি লঞ্চের (ক্যাটামেরান টাইপ) নির্মাণ কাজ চলছিল। অ্যাডভেঞ্চার-৫ নামের লঞ্চটি শতভাগ নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। অ্যাডভেঞ্চার-৬ লঞ্চটিরও ৯০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছিল। ঈদের আগেই লঞ্চ দুটি বরিশাল-ঢাকা নৌপথে চলাচল শুরু করার কথা থাকায় শুক্রবার (৯ জুন) লঞ্চ দুটি পানিতে ভাসানোর এবং ট্রায়াল ট্রিপের প্রস্তুতি চলছিল।

এদিকে লঞ্চ মালিক নিজাম উদ্দিন জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে নলছিটি থানায় জিডি করা হয়েছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>