পরকীয়া সন্দেহে সিআইডি পরিচয়ে তুলে নিয়ে কলেজছাত্রকে নির্যাতন

আপডেট : August, 8, 2017, 10:39 pm

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বরিশাল নগরীর চরের বাড়ির এলাকা থেকে মেহেদী হাসান দীপ নামে এক কলেজছাত্রকে সিআইডি পুলিশ পরিচয়ে আটকে বেদম নির্যাতন শেষে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বরিশাল বিলুপ্ত পৌরসভার সাবেক ওয়ার্ড কমিশনার বজলুর রহমানের মেয়ে জামাই মাহাবুব ইসলাম নোমানকে পুলিশ আটক করেছে।

দীপ বরিশাল সদর উপজেলার শায়েস্তাবাদের আব্দুর রব সিকদারের ছেলে এবং ঢাকার তেজগাঁও কলেজের স্নাতক সন্মান দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন দীপ জানান, গত সোমবার সকালে শায়েস্তাবাদ থেকে চরেরবাড়ি এলাকায় খালার বাসায় বেড়াতে যান তিনি। সেখান থেকে নোমান নিজেকে সিআইডি পুলিশ পরিচয় দিয়ে তাকে ধরে আমবাগান তার চাইনিজ রেস্তোরা আইয়ানে নিয়ে আটকে রাখে। পরে ওই ভবনের সপ্তম তলায় নিয়ে তাকে চরম নির্যাতন করে। তার হাতের আঙ্গুল কুপিয়ে জখম করা হয়। ওই রাতে তাকে এক হাজার টাকা দিয়ে ছেড়ে দেয় নোমান। তবে কি

কারণে তাকে আটকে নির্যাতন চালানো হয় তা দীপ বলতে পারেননি।

এদিকে গত সোমবার সকাল থেকে দীপ নিখোঁজ হওয়ার পর বিষয়টি কোতোয়ালী মডেল থানাকে অবহিত করে তার পরিবার। পুলিশ দীপের মোবাইল ট্রাকিংয়ের মাধ্যমে জানতে পারেন সে আমবাগানে রয়েছে। এরপর পুলিশও দীপের সন্ধানে বের হয়। পুলিশের খোঁজাখুঁজির বিষয়টি টের পেয়ে দীপকে ছেড়ে দেয় নোমান। এরপর দীপকে উদ্ধার করে শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী কোতোয়ালী থানার এসআই মো. মামুন জানিয়েছেন, নোমানের সন্দেহ ছিল দীপের সাথে তার স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে। এ কারণে দীপকে আটকে শারীরিক নির্যাতন চালায় সে। এ ঘটনায় নোমানের রেস্তোরার ৪ কর্মচারীকে আটক করা হয়েছিল। কিন্তু এ ঘটনায় কোন সম্পৃক্ততা না পাওয়ায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। পলাতক নোমানকে আটকের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় দীপের পরিবার মামলা দায়েরের কথা জানিয়েছে বলে জানান এসআই মামুন।

 

Facebook Comments