পিরোজপুরে ছাত্রদল নেতা শামসুল হত্যাকাণ্ড, এক বছরেও অভিযোগপত্র দেয়নি পুলিশ

মার্চ ০৯ ২০১৭, ০৯:১৮

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক শামসুল হককে (২৮) কুপিয়ে হত্যার মামলায় এক বছরেও অভিযোগপত্র দেয়নি পুলিশ। অভিযোগ রয়েছে মামলার আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও তাঁদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না। এ কারণে হত্যা মামলার বিচার নিয়ে শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন মামলার বাদী নিহত ব্যক্তির বড় ভাই মঞ্জুরুল হক।
মঞ্জুরুল হক অভিযোগ করে বলেন, ‘মামলার ৪৪ জন আসামির মধ্যে মাত্র পাঁচজন জামিনে রয়েছেন। বাকি আসামিরা জামিন না নিয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এক বছরেও মামলার অভিযোগপত্র দেওয়া হয়নি। আমি এই মামলায় নিরপেক্ষ তদন্ত ও ন্যায়বিচার নিয়ে শঙ্কার মধ্যে আছি।’
মামলার এজাহার ও নিহত ব্যক্তির পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ৮ মার্চ রাতে শেখমাটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনে বিএনপিদলীয় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তৌহিদুল ইসলামের প্রচারণা শেষে ছাত্রদল নেতা শামসুল হক রঘুনাথপুর গ্রামে তাঁর বাড়িতে ফেরার পথে খুন

হন।

এ ঘটনার তিন দিন পর নিহত শামসুলের বড় ভাই মঞ্জুরুল হক বাদী হয়ে রঘুনাথপুর গ্রামের যুবলীগ কর্মী মোয়াজ্জেম শিকদারকে প্রধান আসামি করে ৪৪ জনের নাম উল্লেখ করে স্থানীয় থানায় মামলা করেন। মামলার আসামিরা স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী।

১১ মার্চ মামলা করার পর মামলাটি তদন্ত করেন নাজিরপুর থানার তৎকালীন উপপরিদর্শক (এসআই) এনায়েত হোসেন। ওই বছরের মে মাসে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) মামলাটির তদন্তভার দেওয়া হয়।

সিআইডি মামলার তদন্তভার পাওয়ার পর ১০ মাসেও আদালতে অভিযোগপত্র দিতে পারেনি। প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও গ্রেপ্তার করা হয়নি আসামিদের।
জানতে চাইলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক বেল্লাল কাজী মামলাটিকে রাজনৈতিক মামলা দাবি করে  বলেন, ‘মামলার কয়েকজন আসামি জামিনে রয়েছেন। প্রধান আসামি মোয়াজ্জেমসহ অন্যরা পলাতক। মামলাটির সাক্ষ্য নেওয়া হচ্ছে। সাক্ষ্যপ্রমাণ নেওয়ার পর আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হবে।’

সূত্রঃ প্রথম আলো

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>