ফোর-জি তরঙ্গের নিলাম আগামী জুনে

ফেব্রুয়ারি ২৬ ২০১৭, ১৪:৪০

এক মাসের মধ্যে ফোর-জি লাইসেন্স প্রদান করে ফোর-জি তরঙ্গ বিতরনের লক্ষ্যে আগামী চারমাসের মধ্যে নিলাম আয়োজনের পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশের টেলিকম নিয়ন্ত্রন সংস্থা। ওই নিলামে দেশে বিদ্যমান চারটি মোবাইল কোম্পানিসহ যে কোন নতুন কোম্পানিও অংশ নিতে পারবে।
সেই সঙ্গে মোবাইল কেম্পানিগুলোর দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) বিদ্যমান স্পেকটার্মগুলোর প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা দেয়ার অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। এরফলে মোবাইল কোম্পনিগুলো তাদের নেটওয়ার্ক  সিস্টেমকে ফোর-জি সুবিধাসম্পন্ন হিসেবে আধুনিকায়ন করে নিতে পারবে বলে স্থানীয় একটি ইংরেজী দৈনিকের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।
এদিকে গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীল তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ও বিটিআরসির কর্মকর্তাদের মধ্যে অনুষ্ঠিত এক সভা থেকে দেশের মোবাইল কোম্পানিগুলোকে খুব তারাতারি
দেশে ফোর-জি মোবাইল সার্ভিস চালু করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
বিটিআরসির একজন কর্মকর্তা জানায়, ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত থ্রি-জির নিলামে পার মেগাহার্টজ স্পেকট্রাম ক্রয়ে ১০ কোটি টাকা খরচ হয়েছিল মোবাইল কোম্পানিগুলোর। এবার সেটা আরো ২০ শতাংশ বেড়ে যেতে পারে।
এতদিন বাংলাদেশে মোবাইল ফোন অপারেটররা টু-জি সার্ভিসের জন্য ১৮০০ এবং ৯০০ মেগাহার্টজ  আর থ্রিজি সার্ভিসের জন্য শুধু ২১০০ মেগাহার্টজ স্পেকটার্ম ব্যবহার করে আসছিলেন।
স্পেকটার্মগুলোর প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা করার সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল ফোন কোম্পানি গ্রামীনফোন।  কোম্পানিটির হেড অব কর্পোরেট অ্যফেয়ার্স মাহমুদ হোসান বলেন, মোবাইল কোম্পানিগুলো সরকারের এই সিদ্ধান্ত দ্রুত বাস্তবায়ন চায় যাতে করে দেশের ভেতরে খুব সহজে মোবাইল কোম্পানিগুলো তাদের নেটওয়ার্কের মান উন্নয়ন করতে পারবে।
Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>