বরিশালের কয়েক হাজার পরিবারের ঈদ আজ

জুন ২৪ ২০১৭, ২২:৫৯

বরিশালের কয়েক হাজার পরিরবার আজ রবিবার ঈদ-উল-ফিতর পালন করবে। এরা চট্টগ্রামের চন্দনাইশ কাঞ্চন নগর পশ্চিম এলাহাবাদ জাহাগিরিয়া শাহ্সুফি মমতাজিয়া দরবার শরীফের অনুসারী। পৃথিবীর কোথাও চাঁদ দেখা গেলে এবং মক্কা নগরীর সাথে তাল মিলিয়ে এরা ঈদ উদযাপন করেন প্রতি বছর। বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রধান ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ১০টায় নগরীর তাজকাঠি জাহাঁগিরিয়া শাহ্সুফি মমতাজিয়া জামে মসজিদে। এ দরবার শরীফের অনুসারীরা বরিশাল সিটি করপোরেশনে ৩টি, বাবুগঞ্জে ৪টি, হিজলায় ২টি, মেহেন্দিগঞ্জে ২টি, বন্দর থানা সাহেবের হাটে ২টি, বাকেরগঞ্জে ১টি স্থানে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন। এদিকে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার প্রায় চার হাজার পরিবার আজ রবিবার ঈদ-উল-ফিতর উদযাপন করছেন। ধানখালী ইউনিয়নের উত্তর নিশানবাড়িয়া জাহাঁগিরিয়া, শাহ্ সূফি মমতাজিয়া দরবার শরীফ প্রাঙ্গনে এই অনুসারীদের ঈদের নামাজের প্রধান জামাত সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে অনুষ্ঠিত হবে বলে অনুসারি লোন্দা গ্রামের খালেক হাওলাদার জানিয়েছেন। চালিতাবুনিয়া, গিলাতলী, ফুলতলী, পাঁচজুনিয়া ও ধানখালী দরবার শরীফের হাজারো অনুসারি প্রধান জামাতে অংশগ্রহণ করে। এছাড়া কলাপাড়া পৌর শহরের নাইয়াপট্টি, উত্তর লালুয়া মাঝিবাড়িতে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এদের ঈদ উদযাপনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন রয়েছে। শেষ করেছেন

কেনাকাটা। নিশানবাড়িয়া দরবার শরীফের পরিচালক নিজাম উদ্দিন বিশ্বাস জানান, তারা চিটাগং এর চন্দনাইশ উপজেলার কাঞ্চন নগর ইউনিয়নের পশ্চিম এলাহাবাদ গ্রামের সিলসিলায়ে আলীয়া কাদরিয়া চিশতিয়া জাহাগিরিয়িা তরিকতের অনুসারী। স্থানীয় ভাষায় এদেরকে চাঁদ টুপির অনুসারী বলা হয়। নিশানবাড়িয়া, গন্ডামারি, মরিচবুনিয়া, চালিতাবুনিয়া, ছইলাবুনিয়া, সেনের হাওলা, পৌর শহরের নাইয়াপট্টি, বাদুরতলী, তেগাছিয়া, সাফাখালী, চরপাড়া,আজিমদ্দিন গ্রামে প্রায় চার হাজার পরিবারে ১৫ হাজার লোক বসবাস করছেন। এদিকে আমতলীসহ বরগুনা জেলার প্রায় ৫ সহাস্রাধিক আহমাদিয়া জামাত (কাদেরিয়া তরিকার) অনুসারীরা। জানা গেছে,জেলার আমতলী .পাথরঘাটা, বরগুনা সদর. বেতাগী উপজেলার কাদেরিয়া তরিকার পীরের অনুসারীরা প্রতিবছর সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে প্রতিবছর এক দিন আগে রোজা রাখা শুরু করেন এবং একদিন আগে ঈদুল ফিতর ও ঈদূল আযহা উৎযাপন করেন। গোজখালী ছলিমাবাদ দরবার শরীফের খাদেম মোঃ হারুন অর রশিদ জানান, বরগুনা জেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে কাদেরিয়া তরিকার প্রায় ৫ সহাস্রাধীক অনুসারীরা সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে একদিন পূবেই ঈদ উৎসব পালন করেন। সে হিসাবে সৌদি আরব যদি আজ ঈদ উৎসব বিধায় তার সাথে মিল রেখে এ এলাকার আহমাদিয়া জামাত (কাদেরিয়া তরিকার) অনুসারীরা রবিবার ঈদ উৎসব পালন করবেন।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>