বরিশালে আইসিইউ ইউনিট চালুর ১৭ মাস পর উদ্বোধন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জুলাই ২৩ ২০১৭, ১৯:৫৪

শামীম আহমেদ, বরিশালঃ চালু হওয়ার ১৭ মাস পর বরিশালে রোগীদের নির্বির পর্যবেক্ষণের (আইসিউ) ইউনিট অনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী মো. নাসিম।

আজ রোববার দুপুর ১ টায় বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সংলগ্ন এই ইউনিটটি উদ্ভোধন করা হয়।

উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ, বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস, বরিশাল-৫ আসনের সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ ও বরিশাল-৩ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট টিপু সুলতান।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ মেডিকেল এ্যাসেসিয়েশনের কেন্দ্রিয় সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, মহাসচিব ডাঃ এহেতসামুল হক চৌধুরী দুলাল ও বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রর-ভিসি ডা. শরফুদ্দিন আহম্মেদ শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ভাস্কর সাহা, পরিচালক ডা. এসএম সিরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ মেডিকেল এ্যাসেসিয়েশন বরিশাল জেলা শাখার সভাপতি ডা. মো. ইসতিয়াক হোসেন, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের বরিশাল জেলা সভাপতি ডাঃ মুঃ কামরুল হাসান সেলিম, সার্জারী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. এএসএএম শরফুজ্জামান রুবেলসহ হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

উদ্ভোধন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের কনফারেন্স কক্ষে হাসপাতালের সকল চিকিৎসক ও নার্স এবং কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে হাসপাতাল পরিচালক মন্ত্রীর নিকট সকল দাবী তুলে ধরেন।

উল্লেখ্য ২০০৯ সালের শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্তাবধায়নে দ্বিতলা বিশিষ্ট আইসিইউ ইউনিটের ভবনটি নির্মাণ

কাজ শেষ হয়। এরপর দীর্ঘ দিন ভবনটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় পরে থাকে। ২০১০ সালের দিকে ভবনটির ২য় তলায় হাসপাতালের সিসিইউ ইউনিট স্থানন্তর করা হয়। পরবর্তিতে ২০১১ সালের ২০ এপ্রিল বরিশালের সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরন ওই ভবনে আইসিইউ ইউনিটি’র উদ্ভোধন করেন। কিন্তিু সেই থেকে ২০১৬ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত ইউনিটটি চালু করা হয় নি। অতঃপর ২০১৬ সালের মার্চ মাসের শেষের দিকে হাসপাতালের বর্তমান পরিচালক ডাঃ এসএম সিরাজুল ইসলাম দায়িত্ব নিয়ে সার্জারী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. এএসএএম শরফুজ্জামান রুবেল’র সহযোগীতায় ইউনিটটির কার্যক্রম শুরু করে। দীর্ঘ ১৭ মাস পর আজ রোববার ইউনিটিটির অনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন করেন স্বাস্থ্য মন্ত্রী মো. নাসিম। ওই ১৭ মাসে এই ইউনিটে ভর্তি করা চিকিৎসা দেয়া হয়েছে ৩৬৫ রোগীকে। এর মধ্যে মারা গেছেন ১৬০ রোগী। এছাড়া সুস্থ্য হয়ে বাড়ী ফিরতে পেছেন ২০৫ রোগী। ইউনিটে রয়েছে ১০টি আইসিইউ শয্যা, ভেন্টিলেটার, ২১টি মনিটর, ১৬টি সেন্ট্রাল মনিটর, ৫টি বেড সাইট মনিটর। ইউনিটটিতে রোগীর সাক্ষনিক সেবায় নিয়োজিত আছেন ১০ জন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নার্সসহ ১৩ নার্স ও একজন চিকিৎসক।

ওই ইউনিটের নার্সেস ইনচার্য ফরিদা বেগম জানিয়েছেন, আইসিইউ রোগীদের সেবার জন্য আমারা ঢাকা থেকে যে প্রশিক্ষণ পেয়েছি তা যথেষ্ট। কিন্তু আইসিইউ ইউনিটের রোগীদের বারে বারে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য যে সাপটের প্রয়োজন আছে (প্যাথলোজিক্যাল) সে সাপট আমরা পাচ্ছি না। তাই জরুরী ভিত্তিতে এখানে প্যাথলোক্যাল ইন্সট্রুমেন্ট প্রয়োজন।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>