বরিশালে চাঁদা না পেয়ে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে মানববন্ধন!- সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

জুলাই ১৩ ২০১৭, ২২:২৬

বাবুগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বাবুগঞ্জে দাবিকৃত চাঁদার টাকা না পেয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়াত এক সাংবাদিককে কটুক্তির মিথ্যা অপবাদ দিয়ে কথিত মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে একটি কুচক্রী মহল। এমন অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বাবুগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির উপজেলা সভাপতি রণজিৎ কুমার বাড়ৈ। গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি উপজেলার পেশাদার সাংবাদিকদের তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডেকে নিয়ে এমন গুরুতর অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেন এবং তার অভিযোগের স্বপক্ষে বিভিন্ন তথ্য-প্রমাণাদি তুলে ধরেন। এসময় প্রধান শিক্ষক রণজিৎ কুমার বাড়ৈ জানান, কয়েকদিন আগে মাঝ বয়সী দুই যুবক বাবুগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে এসে নিজেদের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বলেন, বাবুগঞ্জ প্রেসক্লাবের সকল সাংবাদিক আপনার (প্রধান শিক্ষক) উপর দারুণ ক্ষিপ্ত। কারণ আপনি বাবুগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মরহুম সাংবাদিক হুমায়ুন কবির সম্পর্কে আজেবাজে কথা বলেছেন। এখন আপনি যদি সবাইকে ম্যানেজ না করেন তবে আপনার বিরুদ্ধে ধারাবাহিক নিউজ এবং আন্দোলন হবে। এসময় আমি তাদের চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একথা প্রমাণ করতে বললে তারা উল্টো আমাকে বলেন, চ্যালেঞ্জে গেলে আপনার ক্ষতি হবে। আপনার চাকরিও চলে যেতে পারে। এর চেয়ে বরং আপনি আমাদের কাছে ২০ হাজার টাকা দেন। তাহলে সব সাংবাদিককে ম্যানেজ করা যাবে বলে জানায় সাংবাদিক পরিচয়দানকারী যুবকরা এবং এদের মধ্যে একজন নিজেকে প্রেসক্লাবের সেক্রেটারি বলে পরিচয় দেয়। এমন ডাহা মিথ্যা অপবাদ দিয়ে আমাকে জিম্মি করার ঘটনায় আমি কাউকে ম্যানেজ তথা চাঁদা দিতে সরাসরি অস্বীকার করি। তখন কথিত ওই দুই সাংবাদিক ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়ে জানায়, আপনি ৭ দিনের বেশি বাবুগঞ্জে থাকতে পারবেন না। আপনার বিরুদ্ধে আন্দোলন হবে, মিছিল

হবে, মানববন্ধন হবে। এসময় আমি তাদের পাল্টা চ্যালেঞ্জ করে বলি, সারাদেশে সাংবাদিক হত্যা এবং প্রায় প্রতিদিন দেশের কোথাও না কোথাও সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে। আপনারা প্রকৃত সাংবাদিক হলে এসব ঘটনা নিয়ে মানববন্ধন করতেন। সেখানে একজন প্রয়াত সাংবাদিককে কটুক্তি করার মিথ্যা অপবাদ দিয়ে একজন প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করার কথা উচ্চারণ করতেও পারতেন না। আপনাদের কলম ধরা নিশ্চয়ই কোনো না কোনো শিক্ষক শিখিয়েছেন। তাই শিক্ষকতার মতো মহান পেশার মর্যাদা নষ্ট করার চিন্তাও মাথায় আনতেন না। এসব কথা শুনে তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, আপনার সামনে কী ভয়াবহ পরিনতি হয় তাই দেখতে থাকেন। “সাংবাদিক ক্ষ্যাপাইলেন শেষে বাঁশের আইক্কা গুইনা দিশা পাইবেন না” বলে তারা ক্ষেপতে ক্ষেপতে স্কুল থেকে বেরিয়ে যায়। আজ বৃহস্পতিবার সেই কথিত দুই সাংবাদিক নামধারী যুবক একটি কুচক্রী মহলের ইন্ধনে অন্য এলাকা থেকে ১৫/১৬ জন টোকাই শ্রেণীর বখাটে যুবকদের ভাড়ায় এনে বাবুগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে ৫ মিনিটের ফটোসেসন সর্বস্ব কথিত এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। প্রয়াত এক সাংবাদিককে কটুক্তির এমন মিথ্যা অপবাদ দিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে একজন প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন নামে এই জঘন্য ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। এই ঘটনা একদিকে পেশাদার সাংবাদিকদের বিতর্কিত করার চক্রান্ত এবং অন্যদিকে জাতি গড়ার কারিগর শিক্ষক সম্প্রদায়ের মর্যাদাহানির অপচেষ্টা বলে লিখিত অভিযোগে জানান ভুক্তভোগী প্রধান শিক্ষক রণজিৎ কুমার বাড়ৈ। এদিকে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে এমন নিকৃষ্ট চক্রান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি বাবুগঞ্জ উপজেলা এবং বরিশাল জেলা কমিটি। এছাড়াও বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির (বাকবিশিস) সিনিয়র নেতা অধ্যাপক গোলাম হোসেন বাকবিশিসের পক্ষ থেকেও এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>