ছাত্রীকে তুলে বাড়ি নিয়ে নির্যাতন করল বখাটে?

জুন ১৭ ২০১৭, ০০:৩৫

ছবিঃ প্রতিকি

বরিশাল বিভাগের ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলায় এক ছাত্রীকে অপহরণ করে বাড়িতে আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রাজাপুর থানায় শুক্রবার মামলা হয়েছে।

এতে উপজেলার পোদ্দার আলা গ্রামের মো. মাইনুল (২৫) ও অজ্ঞাতনামা দুজনকে আসামি করা হয়েছে।

এজাহার ও ওই ছাত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ওই ছাত্রী স্থানীয় একটি কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পাস করেন। মাইনুল প্রায় দেড় বছর ধরে তাঁকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। ওই ছাত্রী গত বৃহস্পতিবার স্নাতক (পাস) ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন করতে গ্রামের বাড়ি থেকে রাজাপুর শহরে আসেন। সেখানে একটি কম্পিউটারের দোকানে যান। বেলা ১১টার দিকে মাইনুল সহযোগীদের নিয়ে ওই দোকানে যান। ছাত্রীকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় তাঁকে জোর করে

একটি মোটরসাইকেলে তুলে শহর থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে নিজের গ্রামে নিয়ে যান। সেখানে বাড়ির একটি কক্ষে আটকে রেখে তাঁর ওপর শারীরিক নির্যাতন করেন। পরে এক ব্যক্তির সহযোগিতায় ওই ছাত্রী পালিয়ে এসে রাজাপুর থানায় আশ্রয় নেন। এরপর তাঁকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

ছাত্রীর বাবা বলেন, কলেজে যাওয়া-আসার পথে মাইনুল তাঁর মেয়েকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। মেয়ের পড়াশোনা বন্ধের উপক্রম হয়। একপর্যায়ে মাইনুল পারিবারিকভাবেও তাঁর মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। তবে তা প্রত্যাখ্যান করা হয়। এর জেরেই তাঁর মেয়েকে তুলে নিয়ে এই নির্যাতন করা হয়েছে। এখন মামলা তুলে নেওয়ার জন্য তাঁদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

রাজাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হারুন আর রশিদ বলেন, মামলায় মাইনুল ছাড়াও অজ্ঞাতনামা দুজনকে আসামি করা হয়েছে। তাঁদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>