বরিশালে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন বাস্তবায়ন ও সচেতনতা বিষয়ক কর্মশালা

আপডেট : July, 12, 2017, 11:25 pm

শামীম আহমেদ, বরিশালঃ বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭’ এর সঠিক বাস্তবায়ন ও সচেতনতা বৃদ্ধিতে আমাদের করনীয় শীর্ষক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার সকাল ১০টায় নগরীর সি এন্ড বি রোডস্থ সেইন্ট বাংলাদেশ বরিশাল কার্যালয়ের প্রশিক্ষন হল রুমে অনুষ্ঠিত হয়।

গালর্স নট ব্রাইডস জোট,এর আয়োজনে যৌন প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে মেয়েদের ক্ষমতায়নের মাধ্যমে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করন প্রকল্প সহযোগীতায় ও জেন্ডার জাস্টিজ এন্ড ডাইভারসিটি করন ব্রাকের পরিচালনা করে।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি উপস্থিত ছিলেন জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রাসিদা বেগম,কর্মশালায়ন প্রোগ্রাম ম্যানেজার দিলরুবা নাসরীন,আনায়ারুল ইসলাম,জোটের সদস্য কাজী ইমাম,ও ব্রাক প্রতিনিধি সুবর্না খাতুন প্রমুখ।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি রাসিদা বেগম সহ উপস্থিত প্রতিনিধিরা বাল্যবিবাহ বন্ধ করার উপর জোড় দিয়ে তাদের বিভিন্ন মতামত ব্যাক্ত করেন।

রাসিদা বেগম এসময় বলেন সরকার ২০২১ সালের মধ্যে ১৫ বছরের নিচে ও ২০৪১ সালের মধ্যে ১৮ বছরের নিচে বাল্যবিবাহ শুন্যের কোঠায় নিয়ে

আসার জন্য কাজ করছে।

গত ১৭ই ২০১৭ মার্চ বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ বিষয়ের উপর রাস্ট্রপতি এডভোকেট. আঃ হামিদ ২০টি নতুন ধারা ও উপধারা গেজেট প্রকাশ করেন।

এতে বলা হয়েছে বাল্যবিবাহ নিবন্ধনের জন্য বিবাহ নিবন্ধকের শাস্তি,লাইসেন্স বাতিল।কোন বিবাহ নিবন্ধক বাল্যবিবাহ নিবন্ধন করিলে তাকে অপরাধের আওতায় আনা সহ তাকে ২বছর ও অন্যান্য ৬ মাস কারা দন্ড ও৫০হাজার টাকা অর্থদন্ড বা উভয়ে দন্ডে দন্ডিত হইবে।
এসময় কর্মশালায় অংশ নেয়া প্রতিনিধিরা অর্থদন্ডের পরিমান বৃদ্ধি করারও সুপারিশ করেন সেই সাথে সাজার মেয়াদ কাল বৃদ্ধি করার ও আহবান জানান।

পাশাপাশি বাল্যবিবাহ বন্ধ করার জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রচার,অভিভাবক,শিক্ষক,মসজিদের ইমাম,পুরোহিত,সমাজ প্রতিনিধিদের নিয়ে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমে কাজ করতে পারলে বাল্যবিবাহ বন্ধ করা সম্ভব হবে বলে অংশ গ্রহনকারীরা মতামত প্রকাশ করেন।

কর্মশালায় বিভিন্ন বে-সরকারী উন্নয়ন মুলক সংস্থা,মসজিদের ইমাম,সাংবাদিক সহ ২১জন প্রতিনিধি অংশ গ্রহন করেন।

Facebook Comments