বরিশালে সর্বহারা পার্টির ৬৪ জনের বিরুদ্ধে নির্যাতিত গৃহবধুর মামলা

আপডেট : June, 4, 2017, 7:11 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বরিশালের হিজলায় কৃষকদের ভুমিহীন করে তাদের সম্পত্তি আত্মসাতের প্রতিবাদ করায় মারধর ও লুটপাটের অভিযোগে সর্বহারা পার্টির সক্রিয় সদস্য সন্ত্রাসী মজিবুর রহমান সরদার ওরফে মজুসহ তার বাহনীর ৬৩ জনকে অভিযুক্ত করে মামলা করা হয়েছে। আজ রোববার হিজলা চর আবুপুর গ্রামের বাসিন্দা নির্যাতনের শিকার পরিবারের গৃহবধু সুমি বেগম বাদী হয়ে অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দ্রুত বিচার আইনে মামলা করেন। আদালতের বিচারক মো. শিহাবুল ইসলাম মামলাটি সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে এজাহার হিসেবে গ্রহনের নির্দেশ দেন। মামলার অন্যান্য অভিযুক্তরা হলেন চর আবু পুর গ্রামের বাসিন্দা জাকির সরদার, হানিফ বেপারি, জলিল মৃধা , কালাম সরদার, আলাউদ্দিন সরদার, জামাল সরদার, মুন্না, ফজলু বেপারি, রবিউল, কালাচান সরদার, মালেক মুন্সি, লতিফ খন্দকার, কালাম বয়াতি , সেরাজ খন্দকার। এছাড়া আরও রয়েছে মুলাদি কৃষ্ণপুর গ্রামের মোতালেব খন্দকার, খোকন বেপারি,

সেকেন্দার হাং, আলম ঢালী, জাহাঙ্গির মল্লিক, রহিম বেপারি, শাহজাহান ঘরামি ও বাচ্চু সরদার। মামলা সুত্রে জানাগেছে, মজিবুর রহমান ওরফে মজু বাহনিীর লোকেরা চর আবুপুরের কৃষকদের ভুমিহীন করে তাদের সম্পত্তি ছিনিয়ে নেয়। এতে বাদীর স্বামী রিকন মুন্সির জমি নিয়ে গেলে তা ফেরত চায়। না দেয়ায় গত ১৩ মে ওই এলাকার কৃষকরা ব্যানার ছাপিয়ে মজুর বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে। এতে বাদী সুমির স্বামী রিকন মুন্সি থাকায় অভিযুক্তরা ক্ষিপ্ত হয়। এর জের ধরে গত ২৯ মে রিকন মুন্সির বাড়িতে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা করে অভিযুক্তরা। এ সময় রিকনকে সহ তার স্ত্রীকে মারধর করে নগদ ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা সহ ৩ ভরি স্বর্নালংকার নিয়ে যায়। এছাড়াও আসবাবপত্র ভাংচুর করে কুপিয়ে বিস্ফোরন ঘটিয়ে জনমনে আতঙ্কের সৃষ্টি করে। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা সাস্থ কমপ্লেক্স এ ভর্তি করে।

Facebook Comments