বরিশালে স্বেচ্ছাসেবকলীগ ভার্সেস আওয়ামীলীগ!

২০১৪ সালে ২ ডিসেম্বর শাহবাগের বিহঙ্গ পরিবহনের বাসে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপে চালকসহ ১১ যাত্রী নিহতের ঘটনার সাথে বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রিয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ নাথ জড়িত। প্রধানমন্ত্রীকে খুশি করতে এবং মনোনায়ন পেতে তার নির্দেশেই নিজ ওই পরিবহনের বাসে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করা হয়। এরপর তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে এমপি নির্বাচিত হয়ে রাম রাজত্ব কায়ম করছে গোটা হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা। আজ মঙ্গলবার বরিশালে জেলা পরিষদের কার্যলয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন জেলা পরিষদের প্রশাসক, মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সাবেক সংসদ সদস্য মইদুল ইসলাম। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার চানপুর ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনে কাটচুপির অভিযোগ তুলে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে এমপি পংকজ নাথের বিরুদ্ধে এমনি নানান অভিযোগ তুলে ধরেন তিনি। তিনি বলেন, হাওয়া ভবনের আর্শিবাদপুষ্ট এই নেতা এখন নৌকা দেখলেই গায়ে আগুন লাগে। নিজে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচিত হলেও বিগত উপজেলার নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী বিরোধীতা করেছেন। একই ভাবে পৌর নির্বচনের সময়ে বিদ্রোহী প্রার্থী দাড় করিয়ে ছিলেন তিনি। ঠিক তেমনি এ চানপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলের মনোনিত প্রার্থীর বিরুদ্ধে বাহাউদ্দিন ঢালীকে দাড় করিয়েছেন। আর ওই প্রার্থীকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে গত কয়েক দিন ধরে তার নেতৃত্যে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মিদের উপর

হামলা-নির্যাতন চালানো হচ্ছে। এমনকি দলের মনোনিত প্রার্থী মাহে আলম ঢালীসহ তার কর্মি সমার্থকদের অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এর পাশাপাশি আজ মঙ্গলবার সকাল থেকেই ভোট কেন্দ্রে প্রার্থীদের যেতে দেয়া হয় নি এবং কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বেড় করে দেয়া হয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মাহেব আলম আজ বেলা ১২ টায় ভোট বর্জন করেছেন। আজ মঙ্গলবার বেলা ২ টায় অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে মইদুল ইসলাম আরো বলেন, এমপি পঙ্কজ নাথের দুর্ণীতির কারনে মানুষ আজ বীতশ্রীদ্ধ। স্কুলের দপ্তরী নিয়োগ থেকে শিক্ষক নিয়োগেও তিনি লাখ লাখ টাকা ঘুষ নিয়েছেন। এ নিয়ে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করেও কোন লাভ হয়নি। খাস জমি বরাদ্ধ দেয়ার নামে প্রায় ১শ কোটি টাকা নিয়েছেন তিনি। বিগত কয়েক বছরে তিনি উপজেলা জুড়ে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। এ সম্পর্কে ইতো মাননিয় প্রধানমন্ত্রী ও দলীর কেন্দ্রিয় সাধারণ সম্পাদকের নিকট অভিযোগ দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে এমপি পংকজ নাথ বলেন, এসব কথা এক মাত্র বিএনপি জামায়াত নেতাদের মুখের বুলি। উনি (মইদুল ইসলাম) কি জামায়াত বিএনপির মুখপাত্র? নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মিদের উপর সংহিসতার প্রসঙ্গে এমপি পংকজ নাথ বলেন, এগুলো সব মিথ্যে কথা। আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন লাভের জন্যই তিনি এসব বুলি আউরাচ্ছেন। মোট কথা হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জবাসী মইদুলের উপর ক্ষুব্ধ।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>