বরিশালে সড়কে নরক যন্ত্রনা

আপডেট : July, 11, 2017, 11:19 pm

বরিশাল অফিসঃ টানা কয়েকদিনের বর্ষণে খানাখন্দে ভরে গেছে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কসহ নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডের গুরুত্বপূর্ণ প্রধান সড়কগুলো। নগরীর গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সড়ক এখন চলাচলের জন্য সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে পরেছে। বাধ্য হয়ে প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বেহাল রাস্তায় চলাচল করছেন নগরবাসী।
সরেজমিনে দেখা গেছে, নগরীর সাগরদী সড়ক, আমতলা সড়ক, ইসলামপাড়া সড়ক, সদর রোড, নিউ সদরঘাট সড়ক, পোর্ট রোড, ফকিরবাড়ি রোড, কালীবাড়ি রোড, মল্লিক রোড, মুসলিম গোরস্থান রোড, পুলিশ লাইনস্ রোড, দড়গাবাড়ি রোড, ইসাকাঠি সড়ক, লুৎফর রহমান সড়ক, কাউনিয়া প্রধান সড়ক, লাকুটিয়া সড়ক, বাগিয়া সড়ক, কাশিপুর কলোনি সড়ক, কাশিপুর চৌমাথা সড়কসহ গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো খানাখন্দে ভরা। বৃষ্টি হলে এসব সড়ক কাদা পানিতে একাকার হয়ে যায়। কোনো কোনো সড়কে বিটুমিন উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।
এছাড়া সড়ক বর্ধিতকরণের জন্য ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের নথুল্লাবাদ জিরো পয়েন্ট থেকে লেবুখালী ফেরিঘাট পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে দীর্ঘদিন থেকে গর্ত করে ফেলে রাখা হয়েছে। পাশাপাশি মহাসড়কের কোথাও কোথাও বিটুমিন

ও পাথর উঠে গেছে। ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের উজিরপুরের জয়শ্রী থেকে ভূরঘাটা পর্যন্ত সড়কের অবস্থাও বেহাল হয়ে পরেছে।
স্থানীয়রা জানান, দোয়ারিকা শিকারপুর সেতুর নতুন অ্যাপ্রোচ সড়ক থেকে বিমানবন্দর মোড় পর্যন্ত সড়কটি ভালোই ছিল। কিন্তু জুন মাসে সেই সড়কের ওপর পাথর দিয়ে উন্নয়নের কাজ শুরু করা হয়। যা এখন ভয়ানক অবস্থায় পরিনত হয়েছে। এ সড়কে উন্নয়নের নামে ভালো রাস্তা নষ্ট করা হচ্ছে বলেও স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করেন।
এ ব্যাপারে বরিশাল নগর সৌন্দর্য রক্ষা আন্দোলন কমিটির সদস্য সচিব কাজী এনায়েত হোসেন বলেন, পরিকল্পিতভাবে সড়কগুলো সংস্কার করা হয়না। সংস্কারের নামে অনেক সময় শুধু গর্ত ভরাট করে অর্থ অপচয় করা হয়। কাজের কাজ কিছুই হয়না। সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা জানান, বৃষ্টির পানিতে গর্ত হবেই। তবে বৃষ্টির কারণে কাজ করা যাচ্ছেনা। সড়ক ভালো রাখার জন্য তাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। বৃষ্টি কমলেই ফের সড়ক সংস্কার ও পুননির্মাণের কাজ করা হবে।

Facebook Comments