বৃষ্টি হলেই দুর্ভোগের এক ঝিল মতিঝিল

আপডেট : July, 5, 2017, 11:43 pm

দেখে মনে হতে পারে নগরের কোনো ঝিলের ঘোলা পানি। সে পানিতে সড়ক বিলীন। এর মধ্যেই নানা ধরনের যান চলছে ছলাৎ-ছলাৎ ঢেউ সৃষ্টি করে। হাঁটুপানি ভেঙে হাঁটতে গিয়ে পথচারী বেসামাল। যেখানে পানি একটু বেশি, সেখানে চলা মুশকিল। পারাপারে নৌকার কাজ সারছে রিকশা। আজ বুধবার সকাল থেকে দুপুর ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত মতিঝিল, দৈনিক বাংলা ও আরামবাগ এলাকার চিত্র ছিল এমনই।

দুপুরে মতিঝিলে দেখা যায়, বলাকা মোড় থেকে সিটি সেন্টারের সামনে পর্যন্ত প্রায় দুই ফুট উচ্চতায় পানি জমে ছিল। নগরের অন্যতম ব্যস্ত ও বাণিজ্যিক এলাকা হওয়ায় এখানে লোকজনের ভিড় একটু বেশি। অনেকে হাঁটুপানি ভেঙে যাচ্ছেন। কেউ কেউ ভেজার হাত থেকে রক্ষা পেতে রিকশা দিয়ে পানি পার হওয়ার চেষ্টা করছেন। রিকশায় যাত্রীদের পা রাখার জায়গায়ও পানি উঠে গিয়েছিল। এ ছাড়া বাস, মাইক্রোবাস ও অন্যান্য ভারী গাড়ি চলাচল করলে পানির ঝাপটা এসে রিকশার যাত্রীদের পা ভিজিয়ে দিচ্ছিল।

এ সময় মতিঝিল সিটি সেন্টারের সামনে পুলিশ বুথের কাছে ঢাকা ওয়াসার একজন কর্মচারীকে দেখা গেল, ম্যানহোলের ঢাকনা খুলে সঙ্গে আরেকজনকে নিয়ে বসে আছেন। ওয়াসার কর্মী মো. আবদুল খালেক পানিতে একটি টুলের ওপর বসে ছিলেন। পানি দ্রুত অপসারণের বিষয়টি তিনি তদারক করছিলেন।

/>

মতিঝিল এলাকার একটি আন্তর্জাতিক কুরিয়ারের কর্মী নয়ন দাস বলেন, মতিঝিলে একটু ভারী বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়। মতিঝিলে বৃষ্টির পানি স্বস্তি না, ভোগান্তি। এখন লোকজনের অভ্যাস হয়ে গেছে। কেউ আর এটা নিয়ে মাথা ঘামায় না।

নয়ন দাসের সঙ্গে কথা বলে সিটি সেন্টার থেকে দৈনিক বাংলার দিকে একটু সামনে এগোতেই দেখা গেল, এই এলাকার প্রধান রাস্তা ও গলির রাস্তায়ও হাঁটুপানি জমে আছে। এসব গলিতে হাঁটুপানি। এই এলাকার বাসিন্দা মো. ইমদাদুল্লাহ বলেন, অন্য সময়ে এখানে কোনো পানি জমে না। কিন্তু বর্ষায় ভারী বর্ষণ হলে এখানে এমন পানি কয়েক বছর ধরে জমছে।

মতিঝিলে জলাবদ্ধতা বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কমিশনার মারুফ আহমেদ মনসুর বলেন, কিছুদিন ধরে শান্তিনগরে কাজ হচ্ছে। এ কারণে ওয়াসার কিছু জায়গায় পানিপ্রবাহ ঠিকভাবে না হওয়ায় একটু পানি জমে যাচ্ছে। মানুষের যাতে দুর্ভোগ না হয়, এ জন্য ওয়াসার সঙ্গে কথা বলে বিভিন্ন জায়গায় মেশিন বসিয়ে পানি সরানোর কাছ চলছে।

আরামবাগের ভেতরে নটর ডেম কলেজের পেছনের দিকে, প্রধান সড়কের (মতিঝিল আসার পথে) বিভিন্ন জায়গায় পানি জমে থাকতে দেখা গেছে। এসব এলাকায় জলাবদ্ধতার সমস্যা অনেক পুরোনো বলে জানালেন এই এলাকার বাসিন্দা মো. তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, এখানে পানি জমে অনেক দিন থেকে। এ বিষয়ে কাউকে বললে তারা বলে ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু যে সমস্যা, সেটা স্থায়ী   থেকেই যাচ্ছে।

Facebook Comments