ভারতের সেই বিচারপতি গ্রেফতার

জুন ২১ ২০১৭, ০০:৫২

প্রধান বিচারপতিকে কারাদণ্ড দেওয়ার পর আদালত অবমাননার জন্য সাজাপ্রাপ্ত কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি চিন্নাস্বামী স্বামীনাথন কারনানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার তামিলনাড়ুর কোইমবাটোরে পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে বলে এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়।

গ্রেফতারের পর চেন্নাইয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ১২ জুন অবসরে এই বিচারপতিকে। বুধবার তাকে কলকাতা নিয়ে প্রেসিডেন্সি কারাগারে রাখা হবে।

ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিসহ মোট ৮ বিচারপতিকে গত ৮মে ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সিএস কারনান।

তফসিলি জাতি-উপজাতিদের ওপর অত্যাচার প্রতিরোধ আইনের আওতায় তিনি সুপ্রিম কোর্টের ওই বিচারপতিদের কারাদণ্ডের রায় দেন।

পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেছেন, সুপ্রিম কোট আগেই তাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন। আদালতের নির্দেশে তাকে কারাগারে পাঠানো হবে।

চলতি বছরের শুরুর দিকে মাদ্রাজ হাইকোর্টের

বিচারপতি থাকাকালীন দেশের ২০ জন ‘দুর্নীতিগ্রস্ত বিচারকের’ নাম উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত দাবি করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে চিঠি পাঠান কারনান।

ওই ঘটনার পর বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় দেশজুড়ে। পরে তাকে কলকাতা হাইকোর্টে বদল করা হলে তিনি অভিযোগ করেন, দলিত শ্রেণির মানুষ হওয়ায় তাকে হয়রানি করা হচ্ছে।

এক পর্যায়ে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের আট সদস্যের বেঞ্চ বিচারপতি কারনানের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে দেখার নির্দেশ দেন।

পরে মানসিক সুস্থতা পরীক্ষার জন্য আসা চিকিৎসকদের ফিরিয়ে দেন বিচারপতি কারনান। এরপর নিজের বাড়িতে আদালত বসিয়ে প্রধান বিচারপতিসহ সুপ্রিম কোর্টের আট বিচারককে পাঁচ বছর করে ‘কারাদণ্ড’দেন তিনি।

সুপ্রিম কোর্টের ৭ সদস্যের একটি বেঞ্চ গত ৯ মে আদালত অবমাননার দায়ে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি কারনানকে ৬ মাসের কারাদণ্ড দেন।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>