ভোলায় বেড়িবাঁধ ভেঙে ১৪ গ্রাম প্লাবিত

আপডেট : June, 12, 2017, 8:13 pm

ভোলা প্রতিনিধি: বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের প্রভাবে দুই দিন ধরে দ্বীপজেলা ভোলার উপর দিয়ে ঝড়ো বাতাস বয়ে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে বৃষ্টি হচ্ছে। জেলার নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে কয়েক ফুট উচ্চতায় পানিতে তলিয়ে গেছে।

তজুমদ্দিন উপজেলায় জোয়ারের পানিতে বেড়িবাঁধ ভেঙে সাতটি গ্রাম ও মনপুরা উপজেলায় বেড়িবাঁধের ভাঙন দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে সাতটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে অন্তত ৪৫ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

স্থানীয়রা জানান, রোববার রাতে তজুমদ্দিন উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের চৌমোহনী এলাকার বেড়িবাঁধ ভেঙে সাতটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে  বালিয়াকান্দি, দেওয়ানপুর, ঘোষের হাওলা,

দক্ষিণ শিবপুর, ইন্দ্র নারায়ণপুর, চাপড়ি, দালাল কান্ধি গ্রামের ১৫ হাজার লোক পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে মনপুরা উপজেলার সাতটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। উপজেলার মনপুরা ও হাজিরহাট ইউনিয়নের অন্তত ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

ভোলা আবহাওয়া অধিদপ্তরের উচ্চ পর্যবেক্ষক আনোয়ার হোসেন জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ৪৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রের্কড করা হয়েছে।

ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটের ইলিশা ফেরিঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। ধসে গেছে ঘাটের অনেকাংশ। এতে পন্টুন দিয়ে যাত্রী উঠা-নামা করতে বিপাকে পড়তে হচ্ছে। নৌকা দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।

Facebook Comments