ভোলায় ‘মোরা’ মোকাবেলায় ৭ কন্ট্রোল রুম

মে ২৯ ২০১৭, ১৫:১৯

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ মোকাবেলায় ভোলায় ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। জেলায় জারি করা হয়েছে ৫ নম্বর সতর্কতা সংকেত। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে খোলা হয়েছে ৭টি কন্ট্রোল রুম।

সোমবার (২৯ মে) দুপুর থেকে উপকূলীয় এলাকায় প্রচার-প্রচারণা ও মাইকিং করছে সিপিপি ও রেডক্রিসেন্ট’র সদস্যরা। চরাঞ্চলের মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে বলা হচ্ছে। এনিয়ে জনমনে কিছুটা আতঙ্ক বিরাজ করছে।

ভোলা ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কেন্দ্রের উপ-পরিচালক সাহাবুদ্দিন বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি বর্তমানে পায়রা বন্দর থেকে ৪৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্ব দিকে অবস্থান  করছে। এজন্য ভোলায় জারি করা হয়েছে ৫ নম্বর সতর্কতা সংকেত। ঝড় মোকাবেলায় আমরা স্বেচ্ছাসেবকদের

প্রস্তুত রেখেছি।

এদিকে, ভোলা সদরের মেঘনা উপকূলের তুলাতলী ও ধনিয়াসহ বেশ কিছু এলাকায় ঘূর্ণিঝড় সতর্কতা সংকেত দিয়ে যাচ্ছে সিপিপি এবং রেডক্রিসেন্ট কর্মীরা। মাইকিং করে জনগণকে নিরাপদ আশ্রয়ে আসার আহ্বান জানানো হচ্ছে। এছাড়া ঝড় মোকাবেলায় জেলার বিভিন্ন উপজেলায় প্রশাসন জরুরি বৈঠক করেছে।

ভোলা জেলা প্রশাসক মো. সেলিম উদ্দিন বলেন, দ্বীপ উপকূলের বাসিন্দাদের মূল ভূখণ্ডে আসতে বলা হয়েছে। এছাড়া আশ্রয় কেন্দ্র, শুকনো খাবার ও স্বেচ্ছাসেবকপ্রস্তুত রাখা হয়েছে। হাসপাতালগুলোতে অ্যাম্বুলেন্স এবং ওষুধ প্রস্তুত রাখতে বলা হয়েছে। ছোট ছোট নৌযানকে নিরাপদ আশ্রয়ে আসতে বলা হয়েছে। দুর্যোগ মোকাবেলায় জেলা প্রশাসক প্রস্তুত রয়েছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>