মনির ভাই আর বলবেন না ‘মিরাজ চা খেয়ে যাও’

ফেব্রুয়ারি ২৫ ২০১৭, ০৬:৩০

 

কাজী মিরাজঃতখন রাত প্রায় ১১টা। নতুন বাজার এলাকার রাস্তাঘাট প্রায় ফাঁকা। মাঝে মধ্যে বাড়ি ফেরার তাড়ায় দ্রুত বেগে ছুটে চলা মটর সাইকেলের তীব্র আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। নগরীর কলেজ রোড এলাকার আরিফ মেমোরিয়াল হাসপাতাল থেকে বেড়িয়েছিলাম একটি অটোর খোজে। নতুন বাজারের দিকে যাওয়ার পথে শীতলাখোলা মোড় থেকে একটু এগিয়ে রাস্তার ওপার থেকে অতি পরিচিত একটি ডাক এলো “মিরাজ কোথায় যাও? চা খেয়ে যাও।” রাত ১১টায়ও যিনি দেখা মাত্র হাসিমুখে চায়ের দাওয়াত দেন তিনি হলেন আমাদের অতি পরিচিত, অতি আপনজন সাংবাদিক মীর মনিরুজ্জামান। তাড়া থাকায় হাসিমুখে হাত নেড়ে রাস্তার অপর প্রান্ত থেকেই গন্তব্যে চলে গেলাম। ঘুনাক্ষরেও জানতে পারিনি রাতের নিয়ন বাতির আলোতে এক ঝলক দেখা সাংবাদিক মীর মনিরুজ্জামানের সাথে এটাই হবে আমার শেষ দেখা। ২২শে ফেব্রুয়ারি রাতে মীর মনিরুজ্জামানের আবেগঘন সেই কন্ঠস্বর এখনও যেন প্রতিধ্বনি হয়ে আমার কানে বাজে। গতকাল বিকেল ৪টায় সহকর্মী ফেরদৌস সোহাগের মোবাইলে দুঃসংবাদটি শুনে কেমন যেন শীরদাড়া বেয়ে ঠান্ডা শীতল স্রোত বয়ে যায়। যেই

মানুষটির কাছে প্রেসক্লাব নির্বাচনের সময় যতবার ভোট প্রার্থনা করেছি ততবার চা না খাইয়ে ছাড়েননি। বড় ভাইয়ের মতো স্নেহ মাখা কন্ঠে বলেছিলেন “বারবার ভোট চাইলে এলে কিন্তু তোমাকে ভোট দিবো না।” এরপরে যতবার নতুন বাজার এলাকা অতিক্রম করেছি মুখ ঘুরিয়ে গেছি। যদি দেখে ফেলে। যদি আবার চা খেতে বসিয়ে দেয়। মনির ভাইয়ের মৃত্যু স্বজন হারানোর বেদনার মতোই। আপনজন হারানো কষ্টের চেয়ে কোনো অংশে কম হয়নি। কেন জানি বারবার মনে হয় সেদিন রাতে যদি তার ডাকে সারা দিতাম হয়তো কিছু কথা বলে যেতেন। হয়তো অনেক দিনের জমানো মনের গোপন কোনো অভিব্যক্তি বলার ছিলো। যা আর কোনো দিন শোনার সৌভাগ্য হবে না। অতি পরিচিত সেই ডাক “মিরাজ চা খেয়ে যাও।” আর কোনো দিন শোনা হবে না। পরম করুণাময় আমাদের মনির ভাইকে পরপারে তুমি শান্তিতে রেখো। এই কামনা করা ছাড়া আমাদের আর কিছুই করার নেই।

দৈনিক আজকের পরিবর্তনের সম্পাদক ও প্রকাশক এবং বরিশাল লাইভের প্রধান সম্পাদক কাজী মিরাজ মাহামুদের ফেসবুক থেকে নেয়া।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>