মসুলের বিখ্যাত মসজিদ ‘ধ্বংস’ করেছে আইএস

জুন ২২ ২০১৭, ১২:০৫

জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) ইরাকের মসুল শহরের একটি ঐতিহাসিক মসজিদ ধ্বংস করেছে। ইরাকি বাহিনী এমনটাই জানিয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

আল-নুরি নামের ওই মসজিদ বেশ প্রাচীন। মসজিদটির ঐতিহাসিক গুরুত্ব রয়েছে। হেলানো মিনারের জন্য মসজিদটি বেশ বিখ্যাত।

আইএস নেতা আবু বকর আল বাগদাদি ২০১৪ সালে এই মসজিদে বসেই খেলাফত ঘোষণা করেছিলেন বলে কথিত রয়েছে।

ইরাকি প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবদির ভাষ্য, মসজিদটি গুঁড়িয়ে দিয়ে আইএস আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের পরাজয়ই স্বীকার করল।

মসজিদ গুঁড়িয়ে দেওয়ার জন্য ইরাকি বাহিনীর পক্ষ থেকে আইএসকে দায়ী করা হলেও জঙ্গিগোষ্ঠীটির সংবাদমাধ্যম বলছে ভিন্ন কথা।

আইএসের কথিত সংবাদমাধ্যম আমাক বলছে, মার্কিন বিমান হামলায় মসজিদটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

আকাশ থেকে

নেওয়া ছবিতে দেখা যায়, মসজিদ ও তার মিনারের একটা বড় অংশ ধ্বংস হয়ে গেছে।

মসুল পুনরুদ্ধার অভিযানের দায়িত্বে থাকা এক ইরাকি কমান্ডার বলেন, তাঁর সেনারা মসজিদটির প্রায় ৫০ মিটারের মধ্যে চলে গিয়েছিলেন। এ সময় আইএস আরেকটি কুখ্যাত অপরাধ করে। তারা মসজিদটি গুঁড়িয়ে দেয়।

 এএফপিইরাকে দায়িত্বরত যুক্তরাষ্ট্রের এক জ্যেষ্ঠ কমান্ডার বলেছেন, মসুল তথা ইরাকের অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ ধ্বংস করেছে আইএস।

মেজর জেনারেল জোসেফ মার্টিন বলেন, এটা মসুল ও ইরাকের সব মানুষের বিরুদ্ধে অপরাধ। এই নৃশংস সংগঠনকে কেন অবশ্যই পুরোপুরি ধ্বংস করা উচিত, এর একটি উদাহরণ এ ঘটনা।

 

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>