‘মালালার ওপর হামলার ঘটনাটি আগেই লেখা’

মে ২৪ ২০১৭, ১০:৩৮

মালালা ইউসুফজাইয়ের ওপর ২০১২ সালে তালেবান হামলার ঘটনাটি ‘আগেই লেখা’ হয় বলে পাকিস্তানের এক নারী সাংসদ দাবি করেছেন।

ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) পার্লামেন্ট সদস্য মুসারাত আহমাদজেব বলেন, মালালার পুরো ঘটনাটি বিবিসির জন্য ‘আগে লেখা’ হয়। পরে পরিকল্পনার অংশ হিসেবে সাজানো হামলা ঘটানো হয়।

উর্দু দৈনিক উম্মাতে এক সাক্ষাৎকারে মুসারাত আহমাদজেব বলেন, ‘মালালার ওপর হামলার ঘটনাটি আগেই লেখা হয়।’ তিনি অভিযোগ তোলেন, মালালাদের বাড়িতে যুক্তরাষ্ট্রের একজন নাগরিক তিন মাস থাকেন। ভবিষ্যতে মালালা কী ভূমিকায় থাকবেন, এর প্রশিক্ষণ দেন ওই ব্যক্তি।

মুসারাত আহমাদজেব মালালার মাথায় আদৌ কোনো গুলি লেগেছে কি না, তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন।

আহমাদজেব টুইটারে বলেন, ‘মালালার মাথায় গুলি

করা হয়, কিন্তু সোয়াতে যখন তাঁর মাথার সিটি স্ক্যান করা হয়, তখন কোনো গুলি পাওয়া যায়নি। কিন্তু পরে পেশোয়ারের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল-সিএমএইচে পরীক্ষায় তাঁর মাথায় গুলি ধরা পড়ে।’

এ ছাড়া মালালার চিকিৎসায় নিয়োজিত চিকিৎসকদের সরকার বাড়ি নির্মাণের জন্য জমি দেন বলেও অভিযোগ করেন এই আইনপ্রণেতা। আর বিবিসিতে ছদ্মনামে মালালা ইউসুফজাই যে সময়ে লিখতেন বলে বলা হয়ে থাকে, তখন তিনি লিখতে জানতেন না বলে মন্তব্য করেন আহমাদজেব।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের প্রত্যন্ত সোয়াত উপত্যকায় জন্ম নেওয়া মালালা তালেবানের বাধার পরও নারী শিক্ষা বিস্তারে কাজ করে যাওয়ায় ২০১২ সালে জঙ্গিরা তাঁকে গুলি করে। ২০১৪ সালে সবচেয়ে কম বয়সী হিসেবে নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভ করেন তিনি।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>