মির্জাগঞ্জের মাদক ব্যাবসায়ীরা ধরা ছোয়াঁর বাইরে

জুন ০৬ ২০১৭, ২৩:১০

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালী মির্জাগঞ্জ উপজেলা বিভিন্ন স্পটে মাদক ব্যাবসায়ীরা ধরা ছোয়ার বাইরে। বিভিন্ন সুত্রে জানাযায় উপজেলা চিহ্নিত মাদক ব্যাবসায়ীরা র্দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা গাজা ও ফেনসিডিল এর ব্যাবসা চালিয়ে যাচ্ছে কিন্তুু এরা ধরা ছোয়ার বাইরে। মুল ব্যাবসায়ীরা ধরা না পড়ায় সেবন কারীদের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। মুল ব্যাবসায়ীরা ধরা না পড়ায় সাধারন জনগনের মধ্যে দেখা দিয়েছে হতাশা। সুএে জানাযায় মির্জাগঞ্জ উপজেলা যে কয়জন চিহ্নিত ইয়াবা ও গাজা ব্যাবসায়ী এরা হলেন উপজেলা প্রান কেন্দ্রে রানীপুর গ্রামের ইয়াবা ব্যাবসায়ী মোঃ রাজু , গাজা ব্যাবসায়ী গাজা মজিদ কাকড়াবুনিয়া ইউনিয়ানে ইয়াবা ব্যাবসায়ী মোঃ রাসেল , মাসুদ , চাদনী বাজারে নুরনবী , মজিদ বাড়িয়া ইউনিয়ানে ইয়াবা ব্যাবসায়ী চালিতা বুনিয়া গ্রামের মিরাজ হোসেন , খলিসাখালী বাজারে আলআমিন, সুবিদখালী বাজারে গাজা সুকুমার দেউলি বাজারে ইয়াবা নামে পরিচিত ইয়াবা ব্যাবসায়ী মোঃ নয়ন খান ও গাজা বাদল , এরা দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন স্পটে ইয়াবা ও গাজা বিক্রি

করে আসছে বলে জানা যায় । রানীপুর গ্রামের রাজু ঢাকা গামী গাড়ীর বুকিং ইনচাজ হওয়ায় ঢাকা থেকে ইয়াবার চালান রাজু নিকট পৌছলে ওখান থেকে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করা হয় ইয়াবা আগে গুটি ও বাবা নামে পরিচিত ছিল।এখন নাম পরিবর্তন করে প্রকার ভেদে ২০০/৩০০/৫০০টাকা ধার দিতে পারবা লোক পাঠালাম টাকার প্রয়োজন । এ নামে ইয়াবা বিক্রি হচ্ছে বলে জানালেন বিবিন্ন ইয়াবা সেবন কারীরা । এদিকে মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনির হোসেন থানায় যোগদান করার পর থেকেই মাদকের বিরুদ্বে অভিযান চালান এবং অভিযান এখনো অব্যাহত আছে। এ অভিযানে এখন পর্যান্ত রেকর্ড সংখ্যক মাদক ব্যাবসায়ী ও সেবন কারীদের কে গ্রেফতার করা হয় । এদের বিরুদ্বে মাদক দ্রব্য আইনে নিয়মিত মামলা দায়ের ও ভ্্রাম্যমান আদালতে সাজা দেওয়া হয় । এ অভিযানের ফলে মুল ইয়াবা ও গাজা ব্যাবসীয়রা ধরা ছোয়াঁর বাইরে থেকে তাদের ব্যাবসায়ী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানা যায় ।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>