যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন, গৃহবন্দি করে রাখা গৃহবধূকে উদ্ধার

জুলাই ১৩ ২০১৭, ২৩:২৯

ডেস্ক রিপোর্টঃ যৌতুকের দাবিতে এক সন্তানের জননীকে অমানুষিক নির্যাতনের পর বসত ঘরে বন্দি করে রাখা হয়েছে। স্থানীয়রা মুর্মুর্ষ অবস্থায় গৃহবধূ জোসনা বেগমকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। ঘটনাটি জেলার চরমোনাই ইউনিয়নের রাজারচর গ্রামের।
জানা গেছে, ওই গ্রামের জামাল ফকিরের কন্যা জোসনা বেগমের সাথে ২০১০ সালের নভেম্বর মাসে সামাজিকভাবে বিয়ে হয় পাশ্ববর্তী মলচর গ্রামের দুলাল ফকিরের পুত্র সুমনের। বিয়ের পর তাদের সংসারে একটি কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করে। হাসপাতালে শয্যাশয়ী জোসনা বেগম জানান, সম্প্রতি সময়ে সুমন মাদক ও জুয়ায় আসক্ত হয়ে পরেন। এরপর থেকেই বিভিন্ন সময় তাকে তার বাবার বাড়ি থেকে মোটা অংকের টাকা যৌতুক আনার জন্য শারিরিক

নির্যাতন করা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় সর্বশেষ গত ১১ জুলাই দুপুরে জোসনা বেগমকে অমানুষিক নির্যাতন করে রক্তাক্ত জখম করে সুমন ও তার পরিবারের লোকজনে। একপর্যায়ে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে (জোসনা) বসত ঘরের একটি কক্ষে বন্দি করে রাখা হয়। পরবর্তীতে কৌশলে প্রতিবেশীরা বন্ধ কক্ষের তালা ভেঙ্গে মুর্মুর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করেন।
গৃহবধূ জোসনা বেগমের ভাই রাসেল ফকির জানান, বিয়ের পর থেকে গত সাত বছরে বিভিন্ন সময় সুমন ব্যবসার কথা বলে তাদের কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এখন আরও পাঁচ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য তার বোনকে অমানুষিক নির্যাতন করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>