রাজাপুরে শিশুকে মারধরের প্রতিবাদ করায় পিতা-মাতার উপর হামলা

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠির রাজাপুরে আফরিন সুলতানা ইসা (৮) নামে একটি শিশুকে মারধরের প্রতিবাদ করায় তার পিতা আবুল হোসেন (৫০) ও মাতা শিল্পী (৩২) এর উপর পুনরায় হামলা করে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় উপজেলার নৈকাঠি জোম্মাদ্দার বাড়ি ব্রীজ সংলগ্নে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় আহত আফরিন সুলতানা ইসা ১০নং ইসহক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী।
আহত শিল্পী বেগম জানায়, গত বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় তার স্বামী ও মেয়ে তাদের দোকানের ভিতর বসা ছিল। এসময় স্থানীয় মামুন জোম্মাদ্দারের ছেলে মাহিম জোম্মাদ্দার (১০) কাছেই লাঠি দিয়ে আমড়া পেড়ে খাচ্ছিল। আকস্মিক মাহিম লাঠিটি ছুড়ে মারলে দোকানের মধ্যে বসা শিশু ইসার হাটুতে লেগে তাৎক্ষনিক ফুলে ওঠে। বিষয়টি স্থানীয় লোকজনের কাছে বলাবলি করায় তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে যায়।
রাত ৮টার দিকে আবুল

হোসেন ও শিল্পী বেগম মেয়ে ইসা কে নিয়ে দোকান বন্ধ করে নিজেদের বাড়ি রওয়ানা হলে পথিমধ্যে ওঁতপেতে থাকা নৈকাঠি জম্মাদার বাড়ির আব্বাস আলীর ছেলে মামুন জম্মাদ্দার (৫৫), মজিবর জোম্মাদ্দারের ছেলে বাপ্পি জোম্মাদ্দার (২৬), মেয়ে রিপা (১৯), মনি বেগম (৩০), স্ত্রী বুলু বেগম (৪৫), মৃত ইমরান হোসেন জোম্মাদ্দারের ছেলে সাজির জোম্মাদ্দার ও বারেক জোম্মাদ্দারের ছেলে আরিফ জোম্মাদ্দার তাদের গতিরোধ করে শিশু ইসাকে আবার মারধর শুরু করে এবং শিশু মেয়েটিকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালায়।
হামলাকারীদের হাত থেকে মেয়েকে বাঁচাতে আবুল হোসেন ও শিল্পী বেগম বাধা দিতে গেলে হামলাকারীরা তাদের উপর চড়াও হয়। এক পর্যায় হামলাকারী চক্রটি তাদেরকে এলোপাথারি লাঠি পেটা করলে দুজনের মাথা ফেটে রক্তাক্ত জখম হয় ও সমস্ত শরীরে ফুলা জখম হয়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাদের দুজনকে রাজাপুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করিয়ে দেয়।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>