রাশিয়াকে গোপন তথ্য জানিয়ে বিতর্কে ট্রাম্প

মে ১৭ ২০১৭, ০৯:৪৮

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অত্যন্ত গোপনীয় গোয়েন্দা তথ্য রাশিয়ার কাছে প্রকাশ করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) গ্রুপের সন্ত্রাসী হামলার হুমকিসংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ছিল এসব। এর মধ্যে বিমানে ল্যাপটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে হামলার হুমকির তথ্যও রয়েছে। গত সপ্তাহে হোয়াইট হাউসের ওভাল অফিসে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ এবং ওয়াশিংটনে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত সের্গেই কিসলিয়াকের সঙ্গে বৈঠক করেন ট্রাম্প। সেই বৈঠকেই তিনি ওই সব তথ্য প্রকাশ করেন। কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় পত্রিকা ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

এ ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন ট্রাম্প। কারণ একটি সহযোগী দেশের কাছ থেকে তথ্যগুলো যুক্তরাষ্ট্র পেয়েছিল, যা রাশিয়ার কাছে প্রকাশ করার অনুমতি ছিল না। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের ব্যক্তিগত ই-মেইল ব্যবহারের সমালোচনা করে ট্রাম্প বলে আসছিলেন, রাষ্ট্রের স্পর্শকাতর বিষয়গুলো কিভাবে সামলাতে হয় তা হিলারি জানেন না। সমালোচকরা বলছেন, ট্রাম্প নিজেই স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে কাজ করতে গিয়ে ছেলেমানুষির পরিচয় দিয়েছেন। ঘটনাটি নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস। সিনেটের

রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাট উভয় দলীয় কয়েকজন সিনেটর ট্রাম্পের আচরণকে ‘বিপজ্জনক’, ‘অবিবেচনাপ্রসূত’ ও ‘অত্যন্ত সমস্যাজনক’ বলে মন্তব্য করেছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মঙ্গলবার এক টুইটার বার্তায় বলেছেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে রাশিয়ার কাছে ‘প্রকৃত ঘটনা’ প্রকাশ করার অধিকার তাঁর আছে। আইএস ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মস্কোকে সাহায্য করতে চান তিনি। হোয়াইট হাউস ওয়াশিংটন পোস্টের খবরটিকে ‘মিথ্যা’ অভিহিত করে বলেছে, দুই নেতা বেসামরিক বিমান চলাচলসহ সর্বজনীন কিছু হুমকি নিয়ে আলোচনা করেছেন।

ওয়াশিংটন পোস্ট নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানায়, গত সপ্তাহে ওভাল অফিসে ল্যাভরভ ও কিসলিয়াকের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের একটি মিত্র দেশের পাঠানো গোপন গোয়েন্দা তথ্য প্রকাশ করেছেন। আইএসের বিরুদ্ধে অভিযান নিয়ে এসব গোপন তথ্য রাশিয়ার সঙ্গে শেয়ার করার অনুমতি যুক্তরাষ্ট্রকে দেয়নি ওই মিত্র দেশ। পত্রিকাটি আরো জানায়, ট্রাম্প নির্ধারিত স্ক্রিপ্টের বাইরে গিয়ে কথা বলতে বলতে স্বতঃস্ফূর্তভাবে গোয়েন্দা তথ্যগুলো প্রকাশ করে ফেলেন। বিমানে ল্যাপটপ কম্পিউটার ব্যবহার

করে এবং অন্যভাবে আইএসের সম্ভাব্য হামলার পরিকল্পনা, কোন দেশ থেকে এসব তথ্য যুক্তরাষ্ট্র পেয়েছে, সেসব তথ্য তিনি প্রকাশ করেন। পত্রিকাটি এও জানায়, ঘটনার পরপরই মার্কিন শীর্ষ কর্মকর্তারা বুঝতে পারেন যে ট্রাম্পের এই ভুলে কী ক্ষতি হতে পারে। তাঁরা বিষয়টি সিআইএ এবং জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থাকে (এনএসএ) জানান। এই সংস্থা দুটি বিশ্বব্যাপী যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র দেশগুলোর গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সঙ্গে তথ্য আদান-প্রদানের বিষয়ে চুক্তিবদ্ধ আছে।

এ ঘটনার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন ট্রাম্প। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় ট্রাম্পের প্রচারণা দল মস্কোর সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছিল বলে অভিযোগ রয়েছে, যা নিয়ে এখন বেশ কয়েকটি তদন্ত চলছে।

ট্রাম্প বলেছেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে রাশিয়ার কাছে ‘প্রকৃত’ ঘটনা তুলে ধরার অধিকার তাঁর আছে। তিনি যা করেছেন সেটা আইএস ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে রাশিয়াকে সাহায্য করতে চান বলেই করেছেন।

ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনের এক দিন পর গতকাল মঙ্গলবার এক টুইটার বার্তায় ট্রাম্প বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট হিসেবে তথ্য প্রকাশের অধিকার আমার আছে। রাশিয়ার সঙ্গে আমি সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলা ও বিমান চলাচলের নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রকৃত তথ্য শেয়ার করতে চেয়েছিলাম। ’ টুইটার বার্তায় ট্রাম্প জানান, মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই তিনি এটি করেছেন। তিনি চাইছেন, রাশিয়া যেন আইএস ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে তাদের পদক্ষেপ আরো জোরদার করে।

ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এইচ আর ম্যাকমাস্টার ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনটিকে ‘মিথ্যা’ বলে অভিহিত করেছেন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দাবি করে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘যেভাবে ঘটনাটি তুলে ধরা হয়েছে, তা মিথ্যা। প্রেসিডেন্ট (ডোনাল্ড ট্রাম্প) এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী (সের্গেই ল্যাভরভ) উভয় দেশের প্রতি অভিন্ন হুমকিগুলো নিয়ে আলোচনা করেছেন, যার মধ্যে বিমান চলাচলের বিষয়ও রয়েছে। কোনো পর্যায়েই কোনো রকম গোয়েন্দা তথ্য বা কৌশল নিয়ে আলোচনা হয়নি। ’ তিনি আরো বলেন, ‘জনসাধারণ জানে না এমন কোনো সামরিক অভিযানের বিষয়ে প্রেসিডেন্ট কিছু প্রকাশ করেননি, আমি ওই ঘরে ছিলাম। এমন কিছু হয়নি। ’

হোয়াইট হাউস পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের একটি বিবৃতিও প্রকাশ করেছে। তাতে টিলারসন বলেছেন, ওভাল অফিসের বৈঠকে প্রধানত সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সূত্র : বিবিসি, সিএনএন, এএফপি।

Facebook Comments

<a href=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/infra-add.jpg” target=”_blank” rel=”noopener”><img src=”http://barisallive24.com/wp-content/uploads/2017/05/Hoopers1.jpg” width=”331″ height=”270″ /></a>